advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

কৃষকের ঋণের টাকা আত্মসাৎ করায় যুবলীগ নেতা কারাগারে   

বান্দরবান প্রতিনিধি
১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ১৬:১৮ | আপডেট: ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ১৬:৫৮
দুদকের হাতে গ্রেপ্তার সদর উপজেলা যুবলীগের সভাপতি ক্যচিং অং মারমা
advertisement

কৃষকদের ঋণের টাকা আত্মসাতের মামলায় বান্দরবান সদর উপজেলা যুবলীগের সভাপতি ক্যাচিং অং মারমাকে (৪৫) গ্রেপ্তার করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। আজ সোমবার সকালে জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সামনে থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। পরে তাকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।

জানা গেছে, অগ্রণী ব্যাংক লিমিটেডের বান্দরবান বাজার শাখার ব্যাংক কর্মকর্তার যোগসাজশে যুবলীগ সভাপতি ক্যচিং অংসহ কয়েকজন ভুয়া কাগজপত্র তৈরি করেন। এরপর উক্ত ব্যাংক থেকে আদা ও হলুদ চাষীদের বিতরণ করার নামে ২৭ লাখ ৭০ হাজার টাকা আত্মসাৎ করেন। সুদসহ যার পরিমাণ ৫০ লাখ ২২ হাজার ৫০৫ টাকা।

এই ঘটনায় তদন্ত শেষে গত ২১ জুলাই দুদকের সমন্বিত জেলা কার্যালয় চট্টগ্রাম-২ এর উপসহকারী পরিচালক বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করেন। ওই মামলায় ব্যাংকের সাবেক ম্যানেজারসহ পাঁচজনকে আসামি করা হয়েছে।

মামলায় অন্য আসামিরা হলেন-ব্যাংকের সাবেক ম্যানেজার নিবারণ চন্দ্র তংচঙ্গ্যা, জ্ঞান চাকমা, জ্যোতিষ কুমার খীসা ও হীরেন্দ্র লাল চাকমা।

মামলার বাদী দুদকের চট্টগ্রাম-২ উপসহকারী পরিচালক মুহাম্মদ জাফর সাদেক শিবলী বলেন, ‘আদা-হলুদ চাষের জন্য ২০১১-১২ এবং ২০১২-১৩ অর্থবছরে বান্দরবান জেলায় ৩০টি ঋণের সুপারিশ করেন। কিন্তু সদর উপজেলা যুবলীগের সভাপতি ক্যচিং অং মারমা প্রায় সবকটি ঋণের বিপরীতে গ্রাহকদের ছবি এবং জাতীয় পরিচয়পত্র সংগ্রহ করে নিজেই আবেদন ফরম পূরণ, স্বাক্ষর প্রদানসহ যাবতীয় প্রক্রিয়া সম্পন্ন করে জমা দেন। ’

মামলার বাদী আরও বলেন, ‘৩০টি ঋণের বিপরীতে অগ্রণী ব্যাংক বান্দরবান শাখা হতে ২৮ লাখ ৯০ হাজার টাকা পাহাড়িদের আদা ও হলুদ চাষীদের মাঝে বিতরণ করা হবে দেখিয়ে উত্তোলন করা হয়। কিন্তু পরবর্তী সময়ে কয়েকজন চাষীকে ১ লাখ ২০ হাজার টাকা প্রদান করে বাকি ২৭ লাখ ৭০ হাজার টাকা আত্মসাৎ করেন, যা সুদসহ মোট ৫০ লাখ ২২ হাজার ৫০৫ টাকা হয়েছে।

advertisement