advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

এভাবে স্বৈরাচার হটানো যাবে না

নিজস্ব প্রতিবেদক
১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ০০:০০ | আপডেট: ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ০০:০৪
advertisement

বিচ্ছিন্নভাবে আন্দোলন করে সরকারকে হটানো যাবে না বলে মন্তব্য করেছেন নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না। তিনি বলেন, পুরো জাতির গণতান্ত্রিক, দেশপ্রেমিক, বামপন্থি শক্তি সবাই মিলে জাতীয় বৃহত্তর ঐক্যের মাধ্যমে এই স্বৈরাচারকে বিদায় করতে হবে। এ জন্য সবাইকে এক হয়ে রাজপথে নামতে হবে।

গতকাল সোমবার রাজধানীর তোপখানা রোডের একটি মিলনায়তনে বিশ্ব গণতন্ত্র দিবস উপলক্ষে নাগরিক ঐক্য আয়োজিত আলোচনাসভায় তিনি এ আহ্বান জানান।

ছাত্রলীগের দুই শীর্ষ নেতাকে অপসারণ প্রসঙ্গে মান্না বলেন, এটি যদি দুর্নীতির বিরুদ্ধে বার্তাই হয়, তা হলে হলমার্কের কেলেংকারির পর উপদেষ্টার বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নেননি কেন? দেশের সব কটা ব্যাংক একের পর এক খালি হয়ে যাচ্ছেÑ এ জন্য যারা দায়ী তাদের বিরুদ্ধে কিছু করেছেন আজ পর্যন্ত? কিছুই করেননি। বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের কাছে ঘুষ চাওয়ার অপরাধে ছাত্রলীগের পদত্যাগী সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের বিরুদ্ধে মামলা হওয়া উচিত বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

ডাকসুর সাবেক ভিপি মান্না বলেন, সাবেক অর্থমন্ত্রী (আবুল মাল আবদুল মুহিত) বলেছেনÑ সাড়ে ৪ হাজার কোটি টাকা, ওটা তো বাদামের খোসার মতো। ওই বাদামের খোসার অর্ধেকের জন্য খালেদা জিয়াকে ১০ বছর সাজা দিয়েছেন। ওই টাকা এক ব্যাংকে রাখার কথা, সেটা আরেক ব্যাংকে আছে। বলতে পারেন, উনি (খালেদা জিয়া) একটা ইরেগুলারিটি করেছেন। এ সময় ক্ষমতাসীনদের মিথ্যুক, প্রতারক ও কাপুরুষ বলে সম্বোধন করেন তিনি।

মান্নার সভাপতিত্বে আলোচনাসভায় আরও ছিলেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, জেএসডি সভাপতি আ স ম আবদুর রব, নাগরিক ঐক্যের উপদেষ্টা এস এম আকরাম, প্রেসিডিয়াম সদস্য শহীদুল্লাহ কায়সার, গণস্বাস্থ্যের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী, অধ্যাপক ড. আসিফ নজরুল, বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পাটির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক, জনসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়কারী জোনায়েদ সাকি ও গণফোরাম নেতা জগলুল হায়দার আফ্রিক প্রমুখ।

advertisement