advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

বলয় গড়ে উঠতে দেওয়া হবে না

নিজস্ব প্রতিবেদক
১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ০০:০০ | আপডেট: ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ০০:০৪
advertisement

ছাত্রলীগের নবনিযুক্ত ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য বলেছেন, আমরা কথা কম বলে কাজ বেশি করব। আমার দরজা সারাদেশের নেতাকর্মীদের জন্য ২৪ ঘণ্টা খোলা থাকবে। কোনো লবিং ও মধ্যস্থতা লাগবে না। যোগ্যতা ও পরিশ্রমের ভিত্তিতে নেতা নির্বাচন হবে। গতকাল সোমবার আমাদের সময়ের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এসব কথা বলেন।

লেখক বলেন, প্রধানমন্ত্রী যেভাবে বলবেন, ঠিক সেভাবে ছাত্রলীগ চলবে। কোনো টেন্ডারবাজ বা চাঁদাবাজের বিরুদ্ধে প্রমাণ পেলে সঙ্গে সঙ্গেই ব্যবস্থা গ্রহণ করব। আমাদের কেন্দ্র করে কোনো বলয় গড়ে উঠতে দেওয়া হবে না।

ছাত্রলীগের নাম ভাঙিয়ে কোনো অন্যায় করলে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা নেওয়া হবে। পরিশ্রমী, ত্যাগী ও শেখ হাসিনার প্রশ্নে আপসহীন নেতাকর্মীদের হাতেই দায়িত্ব দেওয়া হবে ছাত্রলীগের বিভিন্ন ইউনিটের।

কম কথা বলে বেশি কাজ করবেন উল্লেখ করে লেখক ভট্টাচার্য বলেন, আমরা দায়িত্ব শেষে মানুষ মূল্যায়ন করবে। কোনো গ্রুপিং রাখব না। ছাত্রলীগ এক ও অভিন্ন পরিবার। সবাই শেখ হাসিনার কর্মী।

ছাত্রলীগের পদবঞ্চিত নেতাদের বিষয়ে তিনি বলেন, নেতৃত্বের ওপর তাদের ক্ষোভ থাকতে পারে, কিন্তু সংগঠনের ওপর কোনো ক্ষোভ নেই। আমাদের কমিটি হওয়ার পর তারা আনন্দ মিছিল করেছে, সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সমর্থন জানিয়েছে। বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধাও জানিয়েছেন তারা। আমাদের পক্ষ থেকেও তাদের জন্য সমর্থন সবসময় আছে। পদবঞ্চিতদের নিয়ে সৃষ্ট সমস্যার অচিরেই সমাধানের আশ্বাস দেন তিনি। এ ব্যাপারে আওয়ামী লীগের জ্যেষ্ঠ নেতাদের পরামর্শ নেওয়া হবে বলেও জানান লেখক ভট্টাচার্য।

তিনি বলেন, আগামী ১০ মাসের মধ্যে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কাউন্সিল আয়োজন করা আমাদের জন্য একটি অনেক বড় চ্যালেঞ্জ। আমরা এই সময়ের মধ্যেই নিজেদের সর্বোচ্চ দায়িত্ব পালন করব। আমরা আশাবাদী, ছাত্রলীগের জন্য এমন একটি অবস্থান প্রস্তুত করব যেখানে সাংবাদিকরা নেতিবাচক সংবাদ করার কোনো সুযোগই পাবেন না।

advertisement