advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

শাহজাদপুরের সেই সাবরেজিস্ট্রার সাসপেন্ড

শাহজাদপুর প্রতিনিধি
১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ০০:০০ | আপডেট: ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ০০:০৫
advertisement

সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুর উপজেলা সাবরেজিস্ট্রার সুব্রত কুমার দাসকে সাসপেন্ড (সাময়িক বরখাস্ত) করা হয়েছে। ঘুষ-দুর্নীতি, শৃঙ্খলাভঙ্গ ও অসদাচরণের দায়ে আইন, বিচার ও সংসদবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের বিচার বিভাগ-৬ গত রোববার তাকে সাসপেন্ড করে।

মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বপ্রাপ্ত সচিব মো. গোলাম সারওয়ার স্বাক্ষরিত প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, ‘অসদাচরণ’ ও ‘দুর্নীতি’র অভিযোগে বিভাগীয় মোকদ্দমা দায়ের করার সিদ্ধান্তসহ তাকে (সাবরেজিস্ট্রার) সাময়িক বরখাস্ত করা হলো। এতে বলা হয়, ‘সাময়িকভাবে বরখাস্ত থাকাকালে সুব্রত কুমার দাস সিরাজগঞ্জ জেলা রেজিস্ট্রার কার্যালয়ে সংযুক্ত থাকবেন। এ সময় নিয়ম অনুযায়ী ভাতাদি পাবেন।

এদিকে সাবরেজিস্ট্রারের ঘুষ-দুর্নীতি তদন্তে জেলা প্রশাসকের কার্যালয় দুই সদস্যের কমিটি গঠন করে। কমিটি অভিযোগের তদন্ত শুরু করেছে। তদন্ত দলে আছেন শাহজাদপুর উপজেলা এলজিইডির প্রকৌশলী আহম্মেদ রফিক ও শাহজাদপুর উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা মো. কাওছার আলী। আগামী সাত কার্যদিবসের মধ্যে তারা প্রতিবেদন জমা দেবেন। গত ১৫ আগস্ট সোহেল রানা নামে এক ব্যক্তির ফেসবুক আইডিতে শাহজাদপুর সাবরেজিস্ট্রার সুব্রত কুমার দাসের ঘুষ-দুর্নীতির তিনটি ভিডিও পোস্ট করার পর তা ভাইরাল হয়। এ-সংক্রান্ত সংবাদ গণমাধ্যমে প্রচার ও প্রকাশের পর ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা নড়েচড়ে বসেন। শুরু করেন তদন্ত। প্রাথমিকভাবে ঘুষ-দুর্নীতি প্রমাণ পাওয়ায় তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য সংসদবিষয়ক মন্ত্রণালয়ে সুপারিশ পাঠানো হয়। এ সুপারিশের পরিপ্রেক্ষিতে সুব্রত কুমার দাসকে সাময়িক বহিষ্কার করা হলো।

সিরাজগঞ্জ জেলা রেজিস্ট্রার আবুল কালাম মো. মঞ্জুরুল ইসলাম বলেন, সাময়িক বরখাস্তের চিঠি এখনো হাতে পাননি।

advertisement