advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

পরিচালনা পর্ষদের চাপে বড় অঙ্কের ঋণ দিতে হয়

নিজস্ব প্রতিবেদক
১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ০০:০০ | আপডেট: ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ০০:০৬
advertisement

যাচাই-বাছাইয়ে প্রাপ্ত ঝুঁকিগুলো বিবেচনা না করে অনেক সময় পরিচালনা পর্ষদের চাপে ঋণ বিতরণ করা হয়। এর ফলে খেলাপিতে পরিণত হয় অনেক বৃহদাকার ঋণ। এ ক্ষেত্রে ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের কিছুই করার থাকে না। গতকাল রাজধানীর মিরপুরে বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ব্যাংক ম্যানেজমেন্টের (বিআইবিএম) ‘ইফেক্টিভনেস অব রিস্ক মানেজমেন্ট ডিভিশন অব অ্যাসেসমেন্ট’ শীর্ষক সেমিনারে এসব কথা বলেন বক্তারা।

বক্তারা বলেন, বাংলাদেশ ২০০৩ সাল থেকে ব্যাংকের ঝুঁকি ব্যবস্থাপনা কার্যক্রম শুরু হলেও এখন পর্যন্ত পুরোপুরি কাজ করছে না রিস্ক ম্যানেজমেন্ট বিভাগ। সে কারণেই দিনের পর দিন বাড়ছে খেলাপি ঋণ, মূলধন ঘাটতি এবং অ্যাডভান্স ডিপোজিট রেশিও।

সেমিনারে বাংলাদেশ ব্যাংকের ডেপুটি গভর্নর এসএম মনিরুজ্জামান, নির্বাহী পরিচালক মহা. নাজিমুদ্দিন, পূবালী ব্যাংকের সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক হেলাল আহমদ চৌধুরী, বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক নির্বাহী পরিচালক ইয়াছিন আলি, ট্রাস্ট ব্যাংকের এমডি ফারুক মাঈনুদ্দিন আহমেদ প্রমুখ বক্তব্য রাখেন। এতে মূল গবেষণা প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বিআইবিএমের অধ্যাপক মো. নেহাল আহমেদ।

মূল প্রবন্ধে বলা হয়, একসময় আমাদের দেশে রিস্ক ম্যানেজমেন্টের কোনো অভ্যাস ছিল না। আস্তে আস্তে এই অভ্যাস তৈরি হয়েছে। রিস্ক ম্যানেজমেন্টের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ঋণ দেওয়া অনেকটা ভূমিকম্পের আগে নিজেদের প্রস্তুত করে নেওয়ার মতো।

advertisement