advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

দুর্নীতিতে সর্বকালের রেকর্ড ভঙ্গ

নিজস্ব প্রতিবেদক
১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ০০:০০ | আপডেট: ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ০০:২৩
advertisement

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ বলেছেন, দেশে নির্বাচিত সরকার নেই বলে দুর্নীতি মহামারীর আকার ধারণ করেছে। দুর্নীতিতে সর্বকালের সব রেকর্ড ভঙ্গ করেছে এই সরকার। গতকাল দুপুরে কারাবন্দি বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে আয়োজিত মানববন্ধন

কর্মসূচিতে তিনি এ কথা বলেন।

মওদুদ বলেন, ‘সরকারি অথবা আধাসরকারি যে কোনো সংস্থায়, এমনকি বিশ্ববিদ্যালয়েও চাকরির জন্য টাকা দিতে হচ্ছে। পিয়নের জন্য ৩ লাখ, নার্সের জন্য ৫ লাখ টাকা দিতে হয়। টিআইবির যে রিপোর্ট বেরিয়েছে শুনলাম, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে লেকচারার নিয়োগের জন্য ব্রাউন ইনভেলাপ অর্থাৎ টাকার খাম লাগে। প্রাথমিক পর্যায়ে শিক্ষক নিয়োগের জন্য ১০ লাখ টাকা করে নির্ধারণ হয়ে থাকে। অর্থাৎ এমন কোনো জায়গা নেই যেখানে বাণিজ্য নেই, ঘুষ ও অন্যায় অবৈধভাবে অর্থ উপার্জনের ব্যবস্থা নেই।’

তিনি বলেন, ‘পত্রিকায় দেখলামÑ আমাদের দৈনিক নাকি ৭৫ হাজার কোটি টাকা বিদেশে চলে যাচ্ছে। এসব কাদের টাকা? জনগণের টাকা। কারা এটা ভোগ করছেন, যারা এসব লুট করছেন, ব্যাংক থেকে ঋণ নিয়েছেন, ব্লাক মার্কেটিং, অবৈধভাবে অর্থ উপার্জন করেছেন, তাদেরই টাকা বিদেশে পাঠিয়ে দেওয়া হচ্ছে আইন লঙ্ঘন করে।’

ছাত্রলীগ-যুবলীগের প্রসঙ্গ টেনে বিএনপির এ নেতা বলেন, ‘আজকে যুবলীগ-ছাত্রলীগ গত ১০ বছর বাংলাদেশের মানুষের ওপর যে নির্যাতন করেছে, চাঁদাবাজি করেছে, টেন্ডারবাজি করেছে, আজকে তাদের মুখোশ খুলে গেছে। আজকে বিরোধী দল নেই। তবে এমন অবস্থা হয়েছে, সরকার বাধ্য হয়ে ছাত্রলীগের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদককে অপসারণ করতে বাধ্য হয়েছে। কেন? টাকার জন্য, ঘুষের জন্য, দুর্নীতির জন্য।’ মওদুদ বলেন, ‘একটা তালিকা তারা বের করেছেন যে, ৫০০ ছাত্রলীগের নেতাকর্মী চাঁদাবাজি করে। চাঁদাবাজির একটা তালিকা বের করেছেÑ এটা ৫০০ না ৫ হাজার হবে অথবা তার চাইতেও বেশি হবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘সরকার তা হলে কী বুঝাতে চাচ্ছেন? তারা পরিষ্কারভাবে বাংলাদেশের মানুষকে বলছেনÑ এই ছাত্রলীগ, এই যুবলীগ এরা টেন্ডারবাজি করে, চাঁদাবাজি করে, এরা মানুষের ওপর অত্যাচার করে, এরা জমি দখল করে, এরা দোকান দখল করে, এরা মানুষের ওপর অত্যাচার করে টাকা নেয়, মানুষকে গুম করে টাকা নেয়Ñ এই ধরনের কথাই তো আজকে তারা প্রমাণ করেছে।’

advertisement