advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

সেবা গ্রহীতাদের ভূমি অফিসে কম যেতে হবে

নিজস্ব প্রতিবেদক
১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ০০:০০ | আপডেট: ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ০০:৩১
advertisement

ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী বলেছেন, আমরা এমনভাবে ভূমি ব্যবস্থাপনা সংস্কার করছি যেন সেবা গ্রহীতাদের ভূমি অফিসে যেতে না হয়। ভূমি অফিসে যত কম যেতে হবে দুর্নীতির পরিমাণ তত কম হবে। শতভাগ ডিজিটাইজেশন হয়ে গেলে আমরা তা করতে পারব। গতকাল রাজধানীর সিরডাপ মিলনায়তনের এটিএম শামসুল হক অডিটোরিয়ামে এএলআরডি কর্তৃক আয়োজিত ‘বাংলাদেশ

ল্যান্ড স্ট্যাটাস রিপোর্ট ২০১৭’ বইয়ের মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন। প্রতিবেদনমূলক বইটি মূলত ১২ জন বিশেষজ্ঞ ও গবেষক পরিচালিত ১৪টি গবেষণাপত্রের সংকলন।

ভূমি ব্যবস্থাপনার সক্ষমতা উন্নয়ন বিষয়ে মন্ত্রী বলেন, ইউনিয়ন ভূমি অফিসে ডিজিটালাইজেশন সেবা প্রদানের জন্য কমপক্ষে ৫ এমবিপিএস গতির ইন্টারনেট সংযোগ প্রয়োজন। এ ছাড়া ভূমিবিষয়ক লেনদেনের জন্য পেমেন্ট গেটওয়ে স্থাপনের কাজও শেষ পর্যায়ে। একই সঙ্গে ব্রিটিশ ও পাকিস্তান আমলের আইন সংস্কার এবং খাস জমি দখলকে ফৌজদারি অপরাধভুক্ত করার ব্যাপারেও কাজ চলছে। সাইফুজ্জামান জানান, ইতোমধ্যে ৯০ শতাংশের বেশি খতিয়ান ভূমি অনলাইন প্ল্যাটফর্মে আপলোড করা হয়েছে। খুব দ্রুত শতভাগ খতিয়ান অনলাইনে আপলোড করা হবে।

প্রতিবেদনটির সমন্বয়ক ও সম্পাদক অর্থনীতিবিদ অধ্যাপক ড. আবুল বারকাত সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন। তার মতে সমাজের দুর্বৃত্তদের ভূমি দখলের বিভিন্ন মাত্রার প্রমাণের দখলের ওপর অকাট্য যুক্তি প্রদানের সঙ্গে লিখিত একটি পূর্ণাঙ্গ অর্থ-তাত্ত্বিক বিশ্লেষণ এ বই। বইটিতে খাস জমি, চর, অর্পিত ও শত্রু সম্পত্তি, ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীদের জমি, ইজারাকৃত ও চুক্তিভিত্তিক কৃষি জমি, জমির উত্তরাধিকারে নারী এবং ভূমির স্বার্থসংশ্লিষ্ট ব্যাপারে সুশীল সমাজ ও উন্নয়ন অংশীদারদের ভূমিকা ইত্যাদি বিষয়ের ওপর বিস্তারিত বিশ্লেষণ করা আছে।

advertisement