advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

আলোচনার দরজা খোলা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ০০:০০ | আপডেট: ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ০০:৪৬
advertisement

শান্তি প্রচেষ্টা ও আফগান যুদ্ধের কূটনীতিক সমাপ্তির লক্ষ্যে ডোনাল্ড ট্রাম্পকে উদ্দেশ্য করে তালেবান জানিয়েছেÑ আলোচনার জন্য দরজা খোল রয়েছে। এর আগে তালেবান নেতাদের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রে একটি গোপন বৈঠকের আয়োজন করেছিলেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। সেই সময় কাবুলে এক মার্কিন সেনা হত্যার ঘটনায় শেষ মুহূর্তে বৈঠক বাতিল করেন ট্রাম্প। এর পর প্রায় সপ্তাহখানেক আগে ট্রাম্প ঘোষণা করেনÑ তালেবানের সঙ্গে শান্তি আলোচনা ‘মৃত’।

বার্তা সংস্থা বিবিসিকে বিশেষ সাক্ষাৎকার দেন তালেবানের শীর্ষ সমন্বয়ক শের মোহাম্মদ আব্বাস স্তানিকজাই। বিবিসিকে তিনি বলেন, আফগানিস্তানে শান্তি প্রতিষ্ঠার একমাত্র রাস্তা হলো আলোচনা করা। চলতি মাসের শুরুর দিকে ১৮ বছরের যুদ্ধ বন্ধে তালেবান ও যুক্তরাষ্ট্র একটি চুক্তির বেশ কাছাকাছি এসেছিল। ৮ সেপ্টেম্বর তালেবানের শীর্ষ নেতাদের সঙ্গে ডোনাল্ড ট্রাম্পের মুখোমুখি বৈঠক হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু ৬ সেপ্টেম্বর কাবুলে হামলায় এক মার্কিন সেনা নিহত হনÑ ওই হামলার দায় স্বীকার করেছিল তালেবান। এর পরই ট্রাম্প আলোচনা থেকে মুখ ফিরিয়ে নেন।

স্তানিকজাই বিবিসিকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে দাবি করেনÑ তালেবান এখন পর্যন্ত অন্যায় কিছু করেনি। তিনি বলেন, তাদের (মার্কিনিদের) হিসেবেই তারা প্রায় কয়েক হাজার তালেবানকে হত্যা করেছে। আর এখন কেবল একজন মার্কিন সেনা নিহতের সূত্র ধরে তারা এমন প্রতিক্রিয়া দেখাতে পারে না। কেননা দুপক্ষের মধ্যে এখনো কোনো যুদ্ধবিরতির সিদ্ধান্ত হয়নি।

আলোচনা বৈঠক নিয়ে তিনি বলেন, আমাদের দিক থেকে, আলোচনার দরজা খোলা। আমরা আশা করছি অন্যপক্ষও আলোচনা নিয়ে তাদের সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনা করবে। স্তানিকজাই বলেন, চলতি মাসের ২৩ তারিখ থেকে শুরু হতে যাওয়া আন্তঃআফগান আলোচনায় কোনো চুক্তি হলে তাতে বিস্তৃত যুদ্ধবিরতি নিয়েও আলোচনা হতে পারে। আলোচনায় সহযোগিতা করতে চীন ও রাশিয়াকেও অনুরোধ করেছেন বলেও জানিয়েছেন তিনি।

উল্লেখ্য, ২০০১ সালে মার্কিন হস্তক্ষেপের পর যে কোনো সময়ের থেকে তালেবানরা এখন সবচেয়ে বেশি এলাকা নিয়ন্ত্রণ করছেন। যদিও তা আফগান সরকার স্বীকার করতে চায় না।

advertisement