advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

মির্জাগঞ্জে রিকশাচালককে পেটালেন ইউপি সদস্য

নিজস্ব প্রতিবেদক, পটুয়াখালী ও মির্জাগঞ্জ প্রতিনিধি
১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ০০:০০ | আপডেট: ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ০১:০১
advertisement

পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জে ভিজিডির কার্ড পাইয়ে দেওয়ার কথা বলে নেওয়া উৎকোচ ফেরত চাওয়ায় হতদরিদ্র রিকশাচালক দুলাল মুসল্লিকে (৫০) পিটিয়ে গুরুতর আহত করেছেন এক ইউপি সদস্য। ঘটনাটি ঘটে গত মঙ্গলবার সন্ধ্যায় উপজেলার আমড়াগাছিয়া ইউনিয়নের শ্রীনগর গ্রামে। এ ঘটনায় মির্জাগঞ্জ থানা ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে লিখিত অভিযোগ করেছেন আহত দুলাল। তিনি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, উপজেলার আমড়াগাছিয়া ইউনিয়নের ১ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য মো. সোহেল হাওলাদার তার কাছ থেকে এক বছর আগে ভিজিডির কার্ড পাইয়ে দেওয়ার কথা বলে তিন হাজার টাকা নেন। কিন্তু এক বছর পেরিয়ে গেলেও ভিজিডির কার্ড না দিয়ে নানাভাবে টালবাহানা করতে থাকেন তিনি। গত মঙ্গলবার রাতে মো. সোহেল হাওলাদারের কাছে উৎকোচের টাকা ফেরত চান দুলাল মুসল্লি। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে সোহেল ও তার দুই সহযোগীসহ দুলালকে লাঠি দিয়ে পিটিয়ে গুরুতর আহত করেন। স্থানীয়রা উদ্ধার করে তাকে মির্জাগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন।

একই এলাকার বাসিন্দা হতদরিদ্র মো. বশির, মোসা. পারভিন বেগম, তাসলিমা বেগম, আনসার বিশ্বাস, রিনা বেগম, শমসের বিশ্বাস, খালেক হাওলাদার, মোসা. সালেহা বেগম, হক বিশ্বাস ও তাজনেহার বেগম অভিযোগ করেন, ভিজিডি কার্ড পাইয়ে দেওয়ার জন্য তাদের প্রত্যেকের কাছ থেকে তিন থেকে পাঁচ হাজার পর্যন্ত টাকা নিয়েছেন ওই ইউপি সদস্য। টাকা নিয়েও তিনি (ইউপি সদস্য) তাদের ভিজিডি কার্ড দেননি। এখন ওই টাকা ফেরত চাওয়ায় তাদের নানাভাবে ভয়ভীতি দেখানো হচ্ছে।

এ ব্যাপারে ইউপি সদস্য মো. সোহেল হাওলাদারে মুঠোফোনে (০১৭৪২৩৩৯৬৭০) একাধিকবার ফোন করলেও বন্ধ থাকায় কথা বলা সম্ভব হয়নি।

আমড়াগাছিয়া ইউপি চেয়ারম্যান মো. সুলতান হোসেন জানান, ভিজিডি কার্ড নিয়ে হতদরিদ্রদের সঙ্গে ইউপি সদস্য মো. সোহেল হাওলাদারের ভুল বোঝাবুঝি হয়েছে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সরোয়ার হোসেন জানান, এ বিষয়ে অভিযোগ পেয়েছি। প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য মির্জাগঞ্জ থানাকে বলা হয়েছে।

advertisement