advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

প্রধানমন্ত্রীর সান্নিধ্যে বদলে গেল রোমানের জীবন!

মামুন হোসেন
১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ০০:০০ | আপডেট: ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ০১:১০
advertisement

ক্রীড়াবান্ধব, ক্রীড়াপ্রেমী হিসেবে দেশজুড়ে খ্যাতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার। সব ইভেন্ট এবং অ্যাথলেটের প্রতি সমান দৃষ্টি রয়েছে তার। যার সবশেষ উদাহরণ ফিলিপাইন থেকে এশিয়া কাপ আরচারিতে স্বর্ণ জিতে আসা তীরন্দাজ রোমান সানা। মঙ্গলবার নিজ বাসভবন গণভবনে রোমানকে ডেকে পাঠান প্রধানমন্ত্রী। স্বর্ণজয়ী তীরন্দাজকে শুভেচ্ছা জানানোর পাশাপাশি মুষ্টিমুখও করান। প্রধানমন্ত্রীর সান্নিধ্যে অভিভূত রোমান। এর আগে আরও তিনবার শেখ হাসিনার কাছাকাছি যাওয়ার, কথা বলার সুযোগ হয়েছে তার। সেগুলো ছিল দলগতভাবে সৌজন্যমূলক সাক্ষাৎ। এবার একান্তে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করার, কথা বলার সুযোগ হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর ওই এক সাক্ষাতের পর জীবনই বদলে গেছে রোমানের। শুভেচ্ছা আর অভিনন্দনবার্তা তো পদক জেতার পর থেকেই পেয়ে আসছিলেন; সামনে অর্থপ্রাপ্তি এবং নতুন পদও পেতে যাচ্ছেন।

জাতীয় দলের তীরন্দাজ এই পরিচয়ের পাশাপাশি বাংলাদেশ আনসারের একজন সামান্য বেতনভুক্ত অ্যাথলেট খুলনার ছেলে রোমান। এশিয়া কাপে স্বর্ণ জিতে আসার পর থেকে দেশের সর্বোচ্চ ব্যক্তি থেকে সাধারণের ভালোবাসায় সিক্ত এখন তিনি। প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাতের বিষয়ে রোমান আমাদের সময়কে জানান, প্রধানমন্ত্রীর মধ্যে আমি আমার মায়ের ছায়া খুঁজে পেয়েছি। ঘণ্টা দেড়েকের মতো গণভবনে ছিলাম। আমার সঙ্গে অনেক বিষয়ে কথা বলেছেন। শুনেছেন আমার এ পর্যায়ে আসার গল্প। আমার মায়ের চিকিৎসার ভার নিয়েছেন। আমাকে আর্থিকভাবে সহযোগিতার আশ^াস দিয়েছেন। এর আগে আরও তিনবার ওনার সঙ্গে দেখা হয়েছে। তবে সেভাবে কথা হয়নি। এবার অনেক কথা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলে ভীষণ ভালো লেগেছে।

প্রধানমন্ত্রীর তরফ থেকে কী পরিমাণ অর্থ পেতে যাচ্ছেন সেই বিষয়ে বিস্তারিত জানা না গেলেও এশিয়া কাপে রোমানদের স্পন্সরের দায়িত্বে থাকা মধুমতি ব্যাংকের তরফ থেকে আজ বড়সড় ডিনার পার্টি পাচ্ছেন রোমানসহ টুর্নামেন্টে অংশ নেওয়া অন্য তীরন্দাজরা। মধুমতি ব্যাংক রোমানকে তাদের শুভেচ্ছাদূত করার অঙ্গীকারও নাকি করেছে। জীবনের নতুন ইনিংস শুরুর অপেক্ষায় আছেন রোমান। এর বাইরে রোমানদের সব সময়ের স্পন্সর সিটি গ্রুপ (তীর) স্বর্ণজয়ী তীরন্দাজকে ইতোমধ্যে ৫ লাখ টাকা অর্থ পুরস্কার দিয়েছে। তীরের ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর হওয়ারও প্রস্তাব নাকি পেয়েছেন রোমান।

বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) সভাপতি নাজমুল হাসান পাপনের কাছ থেকে গতকাল শুভেচ্ছা উপহার পেয়েছেন রোমান। বিসিবি থেকে ১০ পাউন্ডের এক কেক পাঠানো হয় রোমানের উদ্দেশে; সঙ্গে ছিল অভিনন্দনবার্তা সংবলিত কার্ড। নাজমুল হাসান ফোন করে রোমানের খোঁজখবর নেন। ত্রিদেশীয় সিরিজ শেষে রোমানের সঙ্গে দেখা করার কথাও নাকি দিয়েছেন বিসিবি বস।

এত ভালোবাসার পরও পা মাটিতে রাখছেন রোমান। এসব শুভেচ্ছা-উপহার, ভালোবাসা নাকি তাকে আরও বেশি চ্যালেঞ্জে ফেলে দিয়েছে; আরও ভালো খেলার উৎসাহ-প্রেরণা জোগাচ্ছে। সামনের টুর্নামেন্টগুলোতে সাফল্যের ধারাবাহিকতা ধরে রাখতে চান রোমান।

advertisement