advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

সিআইপি কার্ড পেলেন ১৮২ ব্যবসায়ী

নিজস্ব প্রতিবেদক
১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ০০:০০ | আপডেট: ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ০১:১০
advertisement

রপ্তানি বাণিজ্যে ২০১৭ সালে গুরুত্বপূর্ণ অবদানের স্বীকৃতি হিসেবে ১৩৬ জন ব্যবসায়ীকে বাণিজ্যিকভাবে গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি (সিআইপি রপ্তানি) ও ৪৬ জন ব্যবসায়ীকে সিআইপি ট্রেড কার্ড দিয়েছে সরকার। গতকাল বুধবার রাজধানীর হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টালে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে ব্যবসায়ীদের হাতে এই কার্ড তুলে দেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, উন্নত বাংলাদেশ গড়তে ব্যবসায়ীদের অগ্রণী ভূমিকা পালন করতে হবে। ব্যবসায়ীরাই হলেন দেশের অর্থনীতির চালিকাশক্তি। তারাই দেশের অর্থনীতিকে এগিয়ে নিচ্ছেন। দেশের প্রধান রপ্তানি পণ্য এখন তৈরি পোশাক। রপ্তানি আয়ের ৮৪ ভাগ আসে পোশাক রপ্তানি করে। তাই আমাদের রপ্তানি পণ্য ও বাজার সম্প্রসারণ করতে হবে। গত অর্থবছর আমরা রপ্তানি করেছি ৪৬.৮৭ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। এ বছর ৫৪ বিলিয়ন মার্কিন ডলার রপ্তানির লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। আমার বিশ্বাস গতবারের মতো এবারও রপ্তানি লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়ে যাবে। ২০২১ সালে মোট রপ্তানির পরিমাণ ৬০ বিলিয়ন মার্কিন ডলার হবে বলেও আশা প্রকাশ করেন তিনি।

মন্ত্রী আরও বলেন, ব্যবসায়ীদের উৎসাহ দিতে আমরা তাদের কাজের স্বীকৃতি দিতে চাই। প্রশংসা করতে চাই। আমি আশা করি আগামীতে আরও বেশিসংখ্যক ব্যবসায়ীকে কার্ড দিতে পারব। পণ্যের মানদ- এবং রপ্তানি পরিমাণের ওপর ভিত্তি করে সিআইপি নির্বাচন করা হবে বলে তিনি জানান।

অনুষ্ঠানের বিশেষ অতিথি ছিলেন বাণিজ্য মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি তোফায়েল আহমেদ। তিনি বলেন, বাংলাদেশের রপ্তানি বাণিজ্য একটি খাতের ওপর নির্ভরশীল হয়ে পড়েছে। ২০২৪ সালে বাংলাদেশ এলডিসি থেকে বেরিয়ে উন্নয়নশীল দেশে পরিণত হবে। তখন আর আমরা জিএসপি সুবিধা পাব না। তাই উন্নত বিশ্ব থেকে জিএসপি প্লাস সুবিধা পেতে এখন থেকেই প্রচেষ্টা চালাতে হবে। বাংলাদেশ এখন আর দরিদ্র দেশের মডেল নয়, উন্নয়নের রোল মডেল। উন্নয়নের এ ধারা অব্যাহত রাখতে হবে।

অনুষ্ঠানে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সচিব ড. মো. জাফর উদ্দীন, রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরোর ভাইস চেয়ারম্যান ফাতিমা ইয়াসমিন, এফবিসিসিআই প্রেসিডেন্ট শেখ ফজলে ফাহিম এবং বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (রপ্তানি) তপন কান্তি ঘোষ অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন।

advertisement