advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

২৪ ঘণ্টায় ৫৩৬ জন হাসপাতালে ভর্তি

নিজস্ব প্রতিবেদক
১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ০০:০০ | আপডেট: ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ০১:১০
advertisement

সারাদেশে ডেঙ্গুর প্রকোপ কমেছে। বর্তমানে প্রতিদিন ৫০০-৬০০ ডেঙ্গু রোগী হাসপাতালে ভর্তি হচ্ছেন। গত ২৪ ঘণ্টায় সারাদেশে ৫৩৬ ডেঙ্গুতে আক্রান্ত মানুষ হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। এর মধ্যে ঢাকার ১৭৫ এবং ঢাকার বাইরের ৩৬১ জন রয়েছেন।

বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকরা বলেছেন, এডিস মশা ডেঙ্গু রোগ ছড়ায়। এপ্রিল থেকে অক্টোবর ডেঙ্গু রোগ ছড়ানোর বাহক এডিস মশার উপদ্রব বাড়ে। এসব মশার কামড়ে মানুষ ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে থাকে। সেপ্টেম্বর

থেকে বৃষ্টি কমে যায় বিধায় ডেঙ্গু রোগীও কমতে থাকে।

চলতি বছরের জুন মাস থেকে ঢাকায় ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা বাড়তে থাকে। এর পর জুলাই মাসে ঢাকার বাইরেও ডেঙ্গুর প্রকোপ ছড়িয়ে পড়ে। জুলাই-আগস্ট মাসে প্রতিদিন দুই থেকে আড়াই হাজার মানুষ ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতাল ভর্তি হন। ডেঙ্গুর প্রকোপ ব্যাপক আকারে ছড়িয়ে পড়লে মানুষের মধ্যে আতঙ্ক তৈরি হয়।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা জানান, সেপ্টেম্বর মাস থেকে ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা কিছুটা কমতে থাকে। এক সপ্তাহ ধরে প্রতিদিন ৫০০ থেকে ৬০০ জন ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হচ্ছেন। সারাদেশে ডেঙ্গুর প্রকোপ কমে এসেছে।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হেলথ ইমার্জেন্সি অপারেশন ও কন্ট্রোল রুমের সহকারী পরিচালক ডা. আয়শা আক্তার জানান, দিন দিন ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা কমছে। ঢাকার ১২টি সরকারি ও ২৯টি বেসরকারি হাসপাতালসহ ৪১ প্রতিষ্ঠান থেকে ডেঙ্গু রোগীর তথ্য পাওয়া গেছে। এ ছাড়া রাজধানীর বাইরের ৬৪টি জেলা সিভিল সার্জনদের অফিস থেকে তথ্য পাঠানো হয়। প্রাপ্ত তথ্যমতে, গত ২৪ ঘণ্টায় (মঙ্গলবার সকাল ৮টা থেকে বুধবার সকাল ৮টা পর্যন্ত) সারাদেশের হাসপাতালগুলোয় ৫৩৬ জন নতুন ডেঙ্গু রোগী ভর্তি হন। এর মধ্যে ঢাকার ১৭৫ এবং ঢাকার বাইরে ৩৬১ জন রয়েছেন।

তিনি আরও জানান, চলতি বছরের জানুয়ারি থেকে গতকাল পর্যন্ত ৮২ হাজার ৯৯০ জন ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন। এর মধ্যে জানুয়ারিতে ৩৮, ফেব্রুয়ারিতে ১৮, মার্চে ১৭, এপ্রিলে ৫৮, মে মাসে ১৯৩, জুনে ১ হাজার ৮৮৪, জুলাইয়ে ১৬ হাজার ২৫৩, আগস্টে ৫২ হাজার ৬৩৬ এবং সেপ্টেম্বরের আজ পর্যন্ত ১১ হাজার ৮৯৩ জন। ডেঙ্গু আক্রান্তদের ৯৭ শতাংশ চিকিৎসাসেবায় সুস্থ হয়ে হাসপাতাল থেকে বাড়ি ফিরে গেছেন। গতকাল সকাল পর্যন্ত ২০৩ জনের মৃত্যুর তথ্য আইইডিসিআরে ডেথ ভিউ কমিটিতে জমা হয়েছে। কমিটি ১১৬টি মৃত্যুর কারণ পর্যালোচনা করে ৬৮ জনের মৃত্যু ডেঙ্গু রোগে নিশ্চিত করেছে। বাকি মৃত্যুর ঘটনাগুলো পর্যালোচনাধীন রয়েছে।

advertisement