advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

রাতে গ্রেপ্তার, ভোরে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত

নারায়ণগঞ্জ ও গাজীপুর প্রতিনিধি
১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ০০:০০ | আপডেট: ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ০১:১০
advertisement

হত্যা, মাদককারবার ও চাঁদাবাজির ৪ মামলার এক আসামি কুমিল্লা থেকে আটক হওয়ার পর নারায়ণগঞ্জে র‌্যাবের অভিযানের মধ্যে কথিত বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়েছে। গতকাল বুধবার ভোরে নারায়ণগঞ্জ শহরের সৈয়দপুর এলাকায় ‘বন্দুকযুদ্ধ’-এর ওই ঘটনা ঘটে বলে র‌্যাব-১১ ব্যাটালিয়ন সদর দপ্তরের ল’ অফিসার ও সহকারী পুলিশ সুপার মশিউর রহমান জানান। নিহতের নাম তুহিন। সে শহরের দেওভোগ শান্তিনগর এলাকার কাওসার হোসেনের ছেলে। এ ছাড়া গত মঙ্গলবার রাত আড়াইটার দিকে গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার সাতখামাইর এলাকায় র‌্যাবের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে মাসুদ পারভেজ নিহত হয়। র‌্যাবের দাবি, সে ডাকাত দলের সদস্য। ঘটনাস্থল থেকে একটি পিস্তল, ৬টি শর্টগান, একটি ওয়ান শুটারগান, ১৩টি কার্তুজ ও ২টি গুলি উদ্ধার করা হয়েছে। নিহত

মাসুদ শ্রীপুর উপজেলার বরমী গ্রামের আজিজুল হকের ছেলে।

র‌্যাব সূত্র জানায়, সন্ত্রাসী কর্মকা-ের জন্য দেওভোগ এলাকার মানুষ তুহিনকে চেনে ‘চাপাতি তুহিন’ নামে। এর আগে র‌্যাবের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে নিহত হাসানের প্রধান সহযোগী ছিল সে।

র‌্যাব কর্মকর্তা মশিউর রহমান বলেন, মঙ্গলবার রাতে কুমিল্লার দেবিদ্বার থেকে তুহিনকে গ্রেপ্তার করা হয়। জিজ্ঞাসাবাদ শেষে তাকে নিয়ে গতকাল ভোরে নারায়ণগঞ্জের সৈয়দপুর এলাকায় অস্ত্র ও মাদক উদ্ধার অভিযানে যায় র‌্যাবের একটি দল। সেখানে ওতপেতে থাকা তুহিনের সহযোগীরা তাকে ছিনিয়ে নিতে র‌্যাবকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে। র‌্যাবও পাল্টা গুলি চালায়। গোলাগুলির একপর্যায়ে তুহিন গুলিবিদ্ধ হয়। পরে নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তুহিনকে মৃত ঘোষণা করেন বলে জানান তিনি।

এদিকে গাজীপুর র‌্যাবের সহকারী পুলিশ সুপার কামরুজ্জামান জানান, মঙ্গলবার রাত আড়াইটার দিকে একদল লোক শ্রীপুর উপজেলার সাতখামাইর এলাকায় ডাকাতির প্রস্তুতি নিচ্ছিল। খবর পেয়ে র‌্যাবের টহল দল সেখানে অভিযান পরিচালনা করে। টের পেয়ে ডাকাতরা র‌্যাব সদস্যদের লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে। র‌্যাবও পাল্টা গুলি চালায়। এ সময় মাসুদ পারভেজ ওরফে পারভেজ ডাকাত ঘটনাস্থলেই মারা যায়। তার বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় ১৩টি মামলা রয়েছে। এর মধ্যে ৭টি ডাকাতি, একটি হত্যা, একটি অস্ত্র আইনে এবং অন্যগুলো মাদক ও বিভিন্ন অভিযোগের মামলা।

advertisement