advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

অভিষেকেই বিপ্লবের চমক

ক্রীড়া প্রতিবেদক চট্টগ্রাম থেকে
১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ০১:৩৭ | আপডেট: ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ০১:৩৭
আমিনুল ইসলাম বিপ্লব। ছবি : সংগৃহীত
advertisement

টি-টোয়েন্টিতে গতকাল বুধবার জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে অভিষেক হয়েছে আমিনুল ইসলাম বিপ্লবের। অভিষেকেই বল হাতে জ্বলে উঠলেন তিনি। অভিষেক ম্যাচে নিজের প্রথম ওভারের তৃতীয় বলেই উইকেটের দেখা পেলেন এই লেগ স্পিনার।

ত্রি দেশীয় সিরিজে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে আগের ম্যাচে অভিষেক হয় তাইজুল ইসলামের। আর ওই ম্যাচে নিজের প্রথম বলে উইকেট শিকার করে রেকর্ড গড়েছিলেন তিনি।  তাইজুলের মতো প্রথম বলে উইকেট শিকার করতে না পারলেও অভিষেকে তৃতীয় বলে উইকেট শিকার করে সবার নজর কাড়লেন আমিনুল।

জিম্বাবুয়ের মাতুমবদজিকে ব্যক্তিগত ১১ রানে ফেরান এই লেগস্পিনার। এরপর হ্যামিল্টন মাসাকাদজাকে এলবিডব্লিউর ফাঁদে ফেলেন আমিনুল। চার ওভার বল করে আঠার রান খরচায় দুই উইকেট শিকার করেন আমিনুল।

আমিনুল ছিলেন পুরোদস্তুর একজন ব্যাটসম্যান। সেখান থেকে লেগ স্পিনার হিসেবে তার অভিষেক চমই বলা যেতে পারে। অভিজ্ঞতার বিচারেও হয়তো আমিনুলের জাতীয় দলে খেলার কথা অনেকেই ভাবেননি। আমিনুল কখনো প্রথম শ্রেণির ক্রিকেট খেলেননি। অভিজ্ঞতা বলতে ১৯টি লিস্ট ‘এ’ ম্যাচ আর দুটি টি-টোয়েন্টি। বয়সভিত্তিক ক্রিকেটে আমিনুল খেলেছেন টপ অর্ডার ব্যাটসম্যান হিসেবে। সেখানে ধারাবাহিক ব্যাটিংয়ে খুব যে সবাইকে মুগ্ধ করেছেন, সেটিও নয়।

আমিনুলের সেরা সিরিজ কেটেছে ২০১৫ সালের অক্টোবরে ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন অব বেঙ্গলের (সিবিএ) বিপক্ষে। বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৭ দলের হয়ে চার ম্যাচে সেঞ্চুরি করেছিলেন দুটি (তিন দিনের ম্যাচ ছিল)। ব্যাটিংয়ে সেই দ্যুতি পরে ধারাবাহিকভাবে ছড়াতে পারেননি।

বাংলাদেশের প্রধান কোচ রাসেল ডমিঙ্গোর চাহিদা ছিলো একজন লেগ স্পিনারের। সেই চাহিদা পূরণ করতেই মূলত আমিনুলকে দলে সুযোগ দেওয়া হয়। এইচপি টিমে আমিনুলকে একজন লেগ স্পিনার হিসেবে গড়ে তোলা হয়েছে। লেগ স্পিন দিয়ে বাংলাদেশ দলের প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিনের নজর কেড়েছিলেন আমিনুল। সিরিজের আগেও আমিনুলের প্রশংসায় পঞ্চমুখ ছিলেন প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল। তার আস্থার প্রতিদান ভালোভাবেই দিলেন আমিনুল।

advertisement