advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

বেশি ভাড়ায় ক্ষুব্ধ যাত্রী

ফয়সাল আহমেদ গাজীপুর সদর
২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ০০:০০ | আপডেট: ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ০০:১০
advertisement

ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের গাজীপুর অংশে মিনিবাসে স্বল্প দূরত্বে অতিরিক্ত ভাড়া গুনতে হ"েছ যাত্রীদের। এ নিয়ে প্রায়ই যাত্রীদের সঙ্গে পরিবহন শ্রমিকদের বচসা হলেও সমস্যার সমাধানে কেউ আসছে না।

পরিবহনসংশ্লিষ্টদের ভাষ্য, আগে মহাসড়কের গাজীপুরের ৩০ কিলোমিটার অংশে (গাজীপুরের চান্দনা-জৈনাবাজার) স্বল্প দূরত্বের যাত্রীদের চলাচলের মাধ্যম ছিল লেগুনা। গত বছর সড়ক নিরাপত্তার লক্ষ্যে এ মহাসড়ক থেকে লেগুনা উঠিয়ে দেয় সরকার। এর পর থেকেই স্বল্প দূরত্বের যাত্রীদের ভোগান্তি শুরু হয়। যদিও অল্পদিনের মধ্যেই অর্ধশত মিনিবাস নিয়ে যাত্রী পরিবহন শুরু করে তাকওয়া পরিবহন নামের একটি প্রতিষ্ঠান। এ ছাড়া চলাচল শুরু করে বেশ কয়েকটি মিনিবাস। এতে যাত্রীদের দুর্ভোগ কিছুটা লাঘব হলেও নতুন করে ভোগান্তি শুরু হয় ভাড়া নিয়ে। এসব মিনিবাস স্বল্প দূরত্বের যাত্রীদের কাছ থেকে সর্বনিম্ন ভাড়া আদায় করছে ১০ টাকা, যদিও সরকারিভাবে সর্বনিম্ন ভাড়া ৫ টাকা নির্ধারিত।

মহাসড়কের রঙ্গিলা থেকে মাওনা চৌরাস্তার দূরত্ব এক কিলোমিটার। এটুকু দূরত্বের ভাড়া ১০ টাকা নেওয়া হচ্ছে বলে জানান কারখানার শ্রমিক আনোয়ারা বেগম। অথচ এই ভাড়ায় একই গাড়িতে করে সাত কিলোমিটার দূরে জৈনাবাজারে যাওয়া যায়।

আরেক কারখানা শ্রমিক জাহেদা আক্তারের ভাষ্য, এই মহাসড়কে দূরপাল্লার গাড়িতে স্বল্প দূরত্বের যাত্রীদের ওঠানো হয় না। তারা বাধ্য হয়েই এসব মিনিবাসে চলাচল করেন। তবে এসব মিনিবাসে উঠে নেমে পড়লেও জনপ্রতি ১০ টাকা করে ভাড়া গুনতে হয়। এ নিয়ে প্রতিবাদ করলে মারমুখো হয় পরিবহন শ্রমিকরা।

এ ব্যাপারে তাকওয়া পরিবহনের ব্যব¯'াপক আবদুল আউয়াল জানান, সরকার নির্ধারিত ভাড়ার আইন বিষয়ে তাদের কিছুই জানা নেই। আর তাদের কাছে কেউ কখনো অভিযোগও করেনি। তবে বিষয়টি নিয়ে প্রতিষ্ঠানের চেয়ারম্যানের সঙ্গে আলোচনা করা হবে বলে জানান তিনি।

ভাড়ার বিষয়ে গাজীপুর বিআরটিএর সহকারী পরিচালক (্ইঞ্জি.) মো. এনায়েত হোসেন মন্টু জানান, সরকার কর্তৃক মিনিবাসে সর্বনিম্ন ভাড়া নির্ধারিত করা রয়েছে ৫ টাকা। কেউ অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করে থাকলে তা অবৈধ। এ ব্যাপারে খোঁজ নিয়ে ব্যব¯'া গ্রহণ করা হবে।

advertisement