advertisement
Azuba
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

জমির বিরোধে রৌমারীতে বাবাকে হত্যা

সিরাজদিখানে মামির হাতে ভাগনি খুন

রৌমারী (কুড়িগ্রাম) ও সিরাজদিখান প্রতিনিধি
২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ০০:০০ | আপডেট: ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ০০:১০
advertisement

রৌমারীতে জমি লিখে না দেওয়ায় মাকে সঙ্গে নিয়ে তিন ছেলে খুন করেছে বাবাকে। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুর আড়াইটার দিকে উপজেলার বন্দবেড় ইউনিয়নের বন্দবেড় গ্রামে এ হত্যাকা- ঘটে। নিহতের নাম নুরু মিয়া। তিনি ওই গ্রামের মৃত আজিজুর রহমানের ছেলে। আটককৃতরা হলেন নিহতের স্ত্রী রাবেয়া খাতুন, ছেলে রাশেদুল ইসলাম, আব্দুল্লাহ ও আতিকুর রহমান। এদিকে মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখানে মামির হাতে খুন হয়েছে ভাগনি।

এলাকাবাসী ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, নুরু মিয়া দীর্ঘদিন কুয়েতে চাকরি করে ছয়-সাত বিঘা জমি কেনেন। এর মধ্যে বেশি জমি স্ত্রী ও ছেলেদের নামে ক্রয় করেন। তিন বিঘা জমি নুরু মিয়া নিজের নামে ক্রয় করেন। দীর্ঘদিন থেকে ওই জমি তাদের নামে লিখে দিতে চাপ দেন স্ত্রী ও তিন ছেলে। এ নিয়ে বেশ কিছুদিন থেকে তাদের মধ্যে বিরোধ চলে আসছিল। এরই ধারাবাহিকতায় বৃহস্পতিবার দুপুরে নিজ ঘরের মেঝেতে ফেলে হাতুড়ি দিয়ে মাথায় আঘাত করে হত্যা করা হয় নুরু মিয়াকে। এ ব্যাপারে রৌমারী থানার ওসি মো. দিলওয়ার হাসান ইনাম বলেন, লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। শুক্রবার লাশ ময়নাতদন্তের জন্য কুড়িগ্রাম হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হবে।

এদিকে মামির কাঁচির আঘাতে গুরুতর আহত কলেজছাত্রী তাসনিম আক্তার নিপা (১৭) গতকাল ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে মারা গেছেন। তিনি ইছাপুরা সরকারি কেবি কলেজের একাদশ শ্রেণির ছাত্রী। পূর্বশত্রুতার জেরে গত ১৩ সেপ্টেম্বর নিপার মা রোমেলা বেগমকে মারধর করেন মামি রহিমা আক্তার ও একই বাড়ির আবু তাহেরসহ কয়েকজন। মাকে রক্ষা করতে গেলে রহিমা কাপড় কাটার কাঁচি দিয়ে নিপার পেটে আঘাত করেন। নিপার বাবার অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে মামলার প্রস্তুতি চলছে। ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের আটকে পুলিশ অভিযানও শুরু করেছে। তবে অভিযুক্তরা পলাতক রয়েছে।

advertisement
Evall
advertisement