advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

ধারাবাহিকতা চান শফিউল

আবীর রহমান,চট্টগ্রাম থেকে
২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ০০:০০ | আপডেট: ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ০০:৫৬
জাতীয় দলের পেসার শফিউল ইসলাম
advertisement

দীর্ঘ বিরতির পর জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে দলে ফিরেছেন অভিজ্ঞ পেসার শফিউল ইসলাম। ফর্মহীনতা এবং ইনজুরির কারণে দীর্ঘদিন দলে আসা-যাওয়ার মধ্যেই ছিলেন শফিউল। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে দলে ফিরেই তিন উইকেট শিকার করেন এই পেসার। এ ধারাবাহিকতা ধরে রাখতে চান তিনি। ত্রি-দেশীয় সিরিজের ফাইনালে আগামী মঙ্গলবার আফগানিস্তানের বিপক্ষে মাঠে নামবে বাংলাদেশ।

তার আগে আজ চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে প্রথম পর্বের শেষ ম্যাচে আফগানিস্তানের বিপক্ষে মাঠে নামবে টাইগাররা। ফাইনালের আগে আফগানিস্তানের বিপক্ষে বাংলাদেশের কী লক্ষ্য থাকবে ও দলের প্রস্তুতি বিষয়ে গতকাল সংবাদ মাধ্যমের সঙ্গে কথা বলেন শফিউল। জয়ের ধারাবাহিকতা ধরে রাখাই টাইগারদের মূল লক্ষ্য বলে জানিয়েছেন এ পেসার। ডানহাতি এ পেসার বলেন, ‘আমার মনে হয় যে (শনিবার) প্রস্তুতিটা ভালোভাবে নেওয়ার একটা সুযোগ থাকবে। কালকের (আজকের) ম্যাচটাও আমাদের সবার জন্য গুরুত্বপূর্ণ। কারণ আমরা যদি ভালো খেলি, ইতিবাচক ফল পাই তা হলে এটা থেকে সবার আত্মবিশ্বাস বাড়বে। এ ছাড়া জেতার অভ্যাসটাও সবার জন্য বড় একটা অনুপ্রেরণা হিসেবে কাজ করবে ফাইনালের জন্য।’

টুর্নামেন্টে ফেরার পর নিজেকে দারুণভাবে মেলে ধরেছেন শফিউল। গতকাল অনুশীলনেও বল হাতে ঘাম ঝরিয়েছেন এই পেসার। দলের বোলিং কোচ তার বোলিংয়ে কোনো পরিবর্তন আনার পরামর্শ দিয়েছেন কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে শফিউল বলেন, ‘একটা টুর্নামেন্ট চলার সময় কোচরা বেশি পরিবর্তন আনার চেষ্টা করেন না। আমার বোলিং স্টাইল যেমন আছে তেমনভাবেই এগিয়ে যেতে বলা হয়েছে। শুধু অ্যাকুরেসির দিকে নজর দিতে বলা হয়েছে।’

আফগানিস্তানের বিপক্ষে প্রথম ম্যাচে দলে ছিলেন না শফিউল। আগামী ম্যাচে আফগানিস্তানকে হারাতে হলে আগের ভুলগুলো শুধরে নিয়ে এগিয়ে যাওয়া উচিত বলে মনে করেন শফিউল। তিনি বলেন, ‘আফগানিস্তানকে হারানোর ক্ষমতা আমাদের আছে। আগের ম্যাচের ভুলগুলো শুধরে নিয়ে আমরা নিজেদের কাজ ঠিকভাবে করতে পারলেই আফগানিস্তানকে হারানো সম্ভব।’

পেস বোলিংয়ের চেয়ে স্পিন বোলিং মোকাবিলায় আফগানিস্তান বেশি শক্তিশালী। তাই আফগানিস্তানের বিপক্ষে বড় অস্ত্র হতে পারেন শফিউল-মোস্তাফিজরা। তিনি বলেন, ‘এটা আসলে টিম ম্যানেজমেন্ট ঠিক করবে। তবে স্পিন কিংবা পেসনির্ভর যেভাবেই দল সাজানো হোক না কেন। দলের বোলাররা যদি নিজেদের সেরাটা দিতে পারে, নিজেদের শক্তির জায়গাটা ধরে বল করতে পারে তবে ভালো ফল পাওয়া সম্ভব।’

অনেক দিন পর দলে ফিরেছেন শফিউল। দলের সবাই তাকে আত্মবিশ^াস ফিরে পেতে সাহায্য করেছেন বলে জানিয়েছেন তিনি। এখন নিজের সেরাটা দিয়ে এগিয়ে যেতে চান বলে জানিয়েছেন এই পেসার। তিনি বলেন, ‘সব সময়ই চেষ্টা করি ইনজুরি পাশ কাটিয়ে চলার। যখনই ফিরি তখন চিন্তা করি দেশের জন্য যেন কিছু করতে পারি। ভালো কিছু দিতে পারি, নিজের সেরা পারফরমটা করতে পারি। সিনিয়র ক্রিকেটাররা, কোচিং স্টাফÑ সবাই আমাকে সাহায্য করছে। তো এটা আমার কাজে লেগেছে। অনেক দিন পর আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফেরা, ইনজুরি কাটিয়ে; সিনিয়র ক্রিকেটার, অধিনায়কÑ সবাই আমাকে বেশ সমর্থন করেছে।’

advertisement