advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

ইনজুরি নিয়েও অনুশীলনে আমিনুল

ক্রীড়া প্রতিবেদক,চট্টগ্রাম থেকে
২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ০০:০০ | আপডেট: ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ২৩:২৪
হাতে সেলাই নিয়ে অনুশীলনে নামেন আমিনুল ইসলাম বিপ্লব। গতকাল চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে -বিসিবি
advertisement

টি-টোয়েন্টিতে অভিষেকেই দুই উইকেট নিয়ে আলো ছড়িয়েছেন তরুণ লেগ স্পিনার আমিনুল ইসলাম বিপ্লব। আশাজাগানিয়া পারফরম্যান্সের ম্যাচে ইনজুরিও সঙ্গী হয়েছে তার। বাঁ হাতের তালুতে তিনটি সেলাই পড়েছে। ইনজুরি নেহাত ছোট নয়। জিম্বাবুয়ের ম্যাচের পর ব্যান্ডেজ হাতেই সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন বিপ্লব। সংশয় রয়েছে তার আগামী ম্যাচে খেলা নিয়েও। তবে গতকাল হাতের ইনজুরি নিয়েই দলের সঙ্গে অনুশীলন করলেন আমিনুল।

আজ আফগানিস্তানের বিপক্ষে মাঠে নামবে বাংলাদেশ। নিয়মরক্ষার ম্যাচ হলেও প্রতিপক্ষ আফগানিস্তান বলেই হয়তো বাড়তি গুরুত্ব পাচ্ছে ম্যাচটি। সম্প্রতি আফগানিস্তানের বিপক্ষে টাইগারদের পারফরম্যান্স হতাশাজনক। টেস্ট ম্যাচে হারের পর টি-টোয়েন্টিতেও আফগানিস্তানের বিপক্ষে হারের বৃত্তেই রয়েছে টাইগাররা।

আজ প্রথম পর্বের ম্যাচের পর ফাইনালে আফগানিস্তানের মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ। এই ম্যাচে জয় দিয়েই ফাইনালে আফগানিস্তানের মুখোমুখি হতে চান সাকিব-মুশফিকরা। গতকাল চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে অনুশীলন করে বাংলাদেশ দল। সাবিক, মোস্তাফিজ, শফিউলরা নেটে বোলিং করে ঝালিয়ে নেন নিজেদের। ব্যাট হাতে অনুশীলন করেন মোসাদ্দেক, শান্ত, রিয়াদরা। হাতে সেলাই নিয়েই মাঠের মধ্যে বোলিং অনুশীলন করেন বিপ্লব। এই ম্যাচে তার খেলার বিষয়ে এখনো নিশ্চিত করে কিছু জানানো হয়নি বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) পক্ষ থেকে।

মাঠের এক পাশে দলের দুই হার্ডহিটার সাব্বির-লিটনকে নিয়ে আলাদা অনুশীলন করান দলের ব্যাটিং কোচ নেইল ম্যাকেঞ্জি। মনে হচ্ছিল যেন লিটন দাস ও সাব্বির রহমানকে নিয়ে যেনো ব্যাটিং ক্লাস নিচ্ছেন।

অনুশীলনে প্রত্যেকটি শট নেওয়ার পর দুজনকেই ব্যাখ্যা করে বুঝিয়ে দিচ্ছেন। কোন শট কীভাবে নিতে হবে দেখিয়ে দিচ্ছেন। আবার কোনো শটের জন্য ব্যাটিং কোচের বাহবাও পাচ্ছেন সাব্বির-লিটন। বাংলাদেশ দলের এই দুই হার্ডহিটারকে নিয়ে ম্যাকেঞ্জির ক্লাস চলে দেড় ঘণ্টারও বেশি সময় ধরে। লিটন জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে দুর্দান্ত সূচনা এনে দিলেও সাব্বির বাদ পড়েছেন অফ ফর্মের কারণে। তবে আজ আফগানিস্তানের বিপক্ষে সাব্বিরের খেলার জোরালো সম্ভাবনা রয়েছে। সাব্বিরকে নিয়ে বাড়তি নজরের বড় কারণ হলো তার অফ-ফর্ম। সাব্বিরের সর্বশেষ ১০ টি-টোয়েন্টি ম্যাচে হাফসেঞ্চুরি (৭৭) ছিল মাত্র একটি। ত্রিশোর্ধ্ব ইনিংস একটিও ছিল না। সর্বশেষ চার ম্যাচে তার রান মাত্র ৫২! হার্ডহিটার তকমা পাওয়া সাব্বিরের সঙ্গে টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের এই পরিসংখ্যান খুব বেমানান। তাকে নিয়ে ব্যাটিং কোচের বাড়তি মনোযোগ বলে দেয় তিনি আরও একটি সুযোগ পেতে যাচ্ছেন। এ সুযোগ যদি কাজে না লাগাতে পারেন, তা হলে ভিন্ন কিছুও ভাবতে হতে পারে নির্বাচকদের।

advertisement