advertisement
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

রামায়ণ নিয়ে সহজ প্রশ্নের উত্তর দিতে পারেননি সোনাক্ষী!

বিনোদন ডেস্ক
২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ১০:৩৮ | আপডেট: ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ১১:০৮
সোনাক্ষী সিনহা ও অমিতাভ বচ্চন। ছবি-সংগৃহীত
advertisement

মুম্বাইয়ের জুহুতে যার পারিবারিক বাংলোর নাম রামায়ণ। শুধু তাই নয়, রামায়ণের বিভিন্ন চরিত্রের নামও তার পরিবারের সঙ্গে ওতপ্রোতভাবে জড়িত। এমন পরিবারের মেয়ে হয়েও রামায়ণ নিয়ে করা সহজ প্রশ্নের উত্তর দিতে পারেননি বলিউড অভিনেত্রী সোনাক্ষী সিনহা।

জানা গেছে, গত শুক্রবার রাতে জনপ্রিয় গেম শো ‘কৌন বনেগা ক্রোড়পতি’তে রামায়ণ নিয়ে করা সহজ প্রশ্নের উত্তর দিতে গিয়ে হোঁচট খান সোনাক্ষী। কেবিসি-এর এপিসোডটি সম্প্রচারিত হওয়ার পর থেকেই তাকে নিয়ে ট্রোলিংয়ের ঝড় উঠেছে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে।

ভারতীয় গণমাধ্যম জিনিউজ, ইন্ডিয়া টাইমসসহ একাধিক গণমাধ্যম জানিয়েছে, কেবিসি-এর এপিসোডটিতে বিশেষ অতিথি ছিলেন ‘দাবাং’ খ্যাত এই অভিনেত্রী। শোয়ের সঞ্চালক অমিতাভ বচ্চনের মুখোমুখি হটসিটে ছিলেন রাজস্থানের স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার কর্মী রুমা দেবী। তাকে সাহায্যে করতেই পাশে আসেন সোনাক্ষী। কিন্তু তিনি নিজেই এক সহজ প্রশ্নের উত্তর দিতে গিয়ে চাপে পড়েন।

সোনাক্ষীকে রামায়ণ বিষয়ক একটি প্রশ্ন করা হয়, যার উত্তর দিতে গিয়ে একেবারেই কনফিউজড হয়ে যান সোনাক্ষী। ‘কার জন্য সঞ্জীবনি এনেছিলেন হনুমান?’ রামায়ণের সহজ প্রশ্নের সঙ্গে ছিল চারটি অপশনও। সুগ্রীব, লক্ষণ, সীতা নাকি রাম?- উত্তর দিতে পারেননি হটসিটে বলা প্রতিযোগীও। শেষ পর্যন্ত লাইফলাইন অপশন নিয়ে বিশেষজ্ঞের সাহায্য নিতে হয় সোনাক্ষীকে।

‘দাবাং’ খ্যাত এই অভিনেত্রীর বাবার নাম শত্রুঘ্ন। তার তিন কাকার নাম রাম, লক্ষণ ও ভরত। দুই ভাইয়ের নাম লব ও কুশ। আর বাড়ির নাম রামায়ণ। তাই কেবিসি-এর ওই এপিসোডটি সম্প্রচারিত হওয়ার পর থেকেই তাকে নিয়ে ট্রোল করতে শুরু করেন নেটিজেনরা।

সমালোচকরা বলতে শুরু করেন, ‘সঞ্জীবনী যে লক্ষ্ণণের জন্য এনেছিলেন হনুমান, এই সাধারণ জ্ঞানটুকু নেই সোনাক্ষীর! তিনি নাকি আবার সেলিব্রিটি!’ কেউ কেউ তো সরাসরি অভিনেত্রীকে মাথামোটাও বলেছেন।

অনেকে আবার এমনও বলেছেন, ‘সোনাক্ষীর বাবার নাম তো শত্রুঘ্ন। তা সত্ত্বেও অভিনেত্রী কীভাবে রামায়ণের প্রশ্নে হোঁচট খেলেন?’ কেউ আবার ‘দাবাং ৩’ সিনেমার সংলাপ তুলে লিখেছেন, ‘থাপ্পড়কে তিনি ভয় পান না, রামায়ণের প্রশ্নকে ঠিকই ভয় পেয়েছেন।’

অনেকেই কফি উইথ করণের আলিয়া ভাটের সঙ্গে তুলনা করেন সোনাক্ষীকে। অনেকে আবার বিভিন্ন মিম বানিয়েও সমালোচনা করেন এই অভিনেত্রীকে।

অবশ্য এ ধরনের সমালোচনায় বিচলিত নন সোনাক্ষী, তা স্পষ্টভাবে জানিয়ে দিয়েছেন। গত শনিবার এই টুইটে সমালোচকদের পাল্টা জবাব দিয়েছেন তিনি। সেখানে সোনাক্ষী লিখেছেন, ‘প্রিয় ট্রোলরা, আমার কিন্তু পিথাগোরাসের থিওরি, মার্চেন্ট অফ ভেনিস, নামতা, মুঘল সাম্রাজ্যের শাসকরা এবং আরও যে কত কত কিছু মনে নেই, সেটাও আমার মনে পড়ছে না। যদি আপনাদের কাছে কোনো কাজ না থাকে তবে সময় করে এগুলো নিয়েও মিম বানাও। আমার মিম দারুণ লাগে।’

advertisement