advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

বিএনপির টপ টু বটম পদত্যাগ করা উচিত

নিজস্ব প্রতিবেদক কক্সবাজার
২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ০০:০০ | আপডেট: ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ০০:০৬
advertisement

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, দুর্নীতিতে চ্যাম্পিয়ন বিএনপির মুখে দুর্নীতির বক্তব্য ভূতের মুখে রাম নাম। বিরোধী দল হিসেবে দায়িত্বশীল ভূমিকা পালনে ব্যর্থতার জন্য বিএনপির টপ টু বটম পদত্যাগ করা উচিত। গতকাল রবিবার দুপুরে কক্সবাজার জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে জেলা পর্যায়ের সরকারি অফিস প্রধান ও স্থানীয় সুধীজনদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

সরকারি কর্মকর্তাদের উদ্দেশে মন্ত্রী বলেন, আপনারা যারা সরকারি কর্মকর্তা আপনাদের আওয়ামী লীগ করার প্রয়োজন নেই। সততার

মাধ্যমে জনগণের সেবা করুন। এতেই আওয়ামী লীগের, সরকারের ও দেশের উপকার হবে।

‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অ্যাকশন প্ল্যান শুরু হয়ে গেছে। টেন্ডারবাজ, চাঁদাবাজ ও দখলবাজদের আর রক্ষা নেই। তারা কে কোন দলের, কে কত বড় নেতা, সেদিকে দেখার সুযোগ নেই। তাদের সঙ্গে কোনো আপস নেই। তাদের কোনো ছাড় নেই। অবৈধ দখলদার যে-ই হোক, শেখ হাসিনার সরকার তাদের বিরুদ্ধে কঠোর।’

মন্ত্রী বলেন, অন্য দলের লোক নয়, নিজের দলের লোক মনে করে অপকর্মকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিচ্ছে সরকার। এই শুদ্ধি অভিযানের ফলে সর্ব মহলে প্রশংসিত হয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।

এর আগে সকালে কক্সবাজার শহরের হোটেল মোটেল রোডে নবনির্মিত সড়ক ভবন এবং তিনটি সড়কের উদ্বোধন ও পাঁচটি সড়কের নির্মাণকাজের ভিত্তি স্থাপন করেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী। ওই অনুষ্ঠানে তিনি বিএনপির উদ্দেশে বলেন, রোহিঙ্গা সংকটকে রাজনৈতিক ইস্যু না বানিয়ে সংকট সমাধানে সরকারকে সহযোগিতা করুন।

রোহিঙ্গা সংকটকে দেশের সংকট উল্লেখ করে সেতুমন্ত্রী বলেন, দেশের স্বার্থে দল-মত নির্বিশেষে সবাইকে বিষয়টির প্রতি গুরুত্ব দিতে হবে। রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন নিয়ে চীনের সঙ্গে আলোচনা হচ্ছে বলেও জানান ওবায়দুল কাদের। মন্ত্রী বলেন, রোহিঙ্গা সংকটের শুরু থেকেই ভারত বাংলাদেশের পাশে রয়েছে।

রোহিঙ্গাদের নিজ ভূমিতে নিরাপদে অবশ্যই ফিরে যেতে হবে আর সেই লক্ষ্যে কাজ করছে সরকার।

এসব অনুষ্ঠানে সরকারের চলমান নানা উন্নয়ন কর্মকা-ের চিত্র তুলে ধরে বক্তব্য রাখেন সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

এসব সভায় আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক পানিসম্পদ উপমন্ত্রী একেএম এনামুল হক শামীম, আওয়ামী লীগের উপ-দপ্তর সম্পাদক ও প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়–য়া, স্বেচ্ছাসেবক লীগের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক পংকজ দেবনাথ এমপি, সাইমুম সরওয়ার কমল এমপি, আশেক উল্লাহ রফিক এমপি, জাফর আলম এমপি, কক্সবাজার জেলা প্রশাসক মো. কামাল হোসেন, পুলিশ সুপার মাসুদ হোসেন, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট সিরাজুল মোস্তফা, সাধারণ সম্পাদক ও কক্সবাজার পৌরসভার মেয়র মুজিবুর রহমানসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা, জনপ্রতিনিধি ও দলীয় নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

দুই দিনের সফর শেষে গতকাল বিকালে তিনি ঢাকার উদ্দেশে কক্সবাজার ত্যাগ করেন।

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক দীর্ঘদিন অসুস্থ থাকার পর বিদেশ থেকে চিকিৎসা নিয়ে বাংলাদেশে আসার পর এই প্রথমবার ঢাকার বাইরে সফরে আসেন।

আওয়ামী লীগের জাতীয় সম্মেলন কেন্দ্র করে কক্সবাজারে আওয়ামী লীগের প্রতিনিধি সম্মেলনের মাধ্যমে ঢাকার বাইরের প্রতিনিধি সম্মেলনের কার্যক্রম শুরু করেছে আওয়ামী লীগ।

advertisement