advertisement
advertisement
Azuba
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

গুলশানের তিন স্পা সেন্টারেও পুলিশি অভিযান

১৯ জন আটক

২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ০১:৩৫
আপডেট: ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ০১:৩৫
advertisement

অনৈতিক কর্মকা-ের অভিযোগে গুলশান ১ নম্বরের নাভানা টাওয়ারের তিনটি স্পা সেন্টারে অভিযান চালিয়েছে পুলিশ। গতকাল রাত ৯টায় নাভানা টাওয়ারে লাইফস্টাইল হেলথ ক্লাব স্পা অ্যান্ড সেলুন, ম্যাঙ্গো স্পা ও রেসিডেন্স সেলুন ২-তে অভিযান চালানো হয়। এ সময় স্পা সেন্টারগুলো থেকে ১৬ নারীসহ ১৯ জনকে আটক করা হয়েছে। অভিযান শেষে প্রতিষ্ঠান তিনটি সিলগালা করে দেওয়া হয়।
গুলশান জোনের ডিসি সুদীপ কুমার চক্রবর্তী জানান, স্পার আড়ালে অনৈতিক কর্মকা-ের অভিযোগে ওই তিন প্রতিষ্ঠানে অভিযান পরিচালিত হয়। বিউটি পার্লারের অনুমোদন নিয়ে ভবনের ১৮, ১৯, ২০ তলায় তারা অবৈধ স্পা চালাচ্ছিল। প্রতিষ্ঠান তিনটির মালিকদের ব্যাপারে খোঁজ নিচ্ছে পুলিশ। সেখান থেকে ১৬ নারীসহ যাদের আটক করা হয়েছে তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।
তবে আটক পুরুষরা দাবি করেন, সেলুন লেখা দেখে তারা সেখানে চুল কাটার জন্য গিয়েছিলেন। ভেতরে ঢোকার পর হঠাৎ পুলিশ আসে। তাদের কিছু বলার সুযোগ না দিয়েই আটক করা হয়েছে। গুলশানে উন্নতমানের অনেক সেলুন রয়েছে। সেগুলোতে না গিয়ে স্পা সেন্টারে কেনÑ জানতে চাইলে ওই ব্যক্তিরা দাবি করেন, তারা জানতেন না এখানে অনৈতিক কাজ হয়।
লাইফস্টাইল স্পা সেন্টারে কর্মরত

আটক নারীরা দাবি করেন, তাদের ওখানে কোনো অনৈতিক কাজ হয় না। বডি ম্যাসাজ করাতে তাদের এখানে নারী-পুরুষ সবাই আসেন। বডি ম্যাসাজ ছাড়াও তারা ফেসিয়াল, বডি স্ক্রাপ করান।
রাজধানীতে স্পার নামে অশ্লীলতা, অসামাজিক কার্যকলাপের অভিযোগ অনেক দিনের। প্রতিষ্ঠানগুলো নিজেদের ফেসবুক পেজে স্পন্সর বিজ্ঞাপন দিয়েও তাদের প্রচার করে থাকে। তবে এই প্রথম পুলিশ এ ধরনের প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিল।

advertisement