advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

ডলার সংকটে লেবানন, বিপাকে বাংলাদেশিরা

বাবু সাহা লেবানন
৩০ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ২০:৫০ | আপডেট: ৩০ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ২০:৫০
ছবি : সংগৃহীত
advertisement

দুই দশকেরও বেশি সময় পর প্রথমবারের মতো মার্কিন ডলারের বিপরীতে লেবাননের মুদ্রা ‘‌লিরা’র মূল্যমান কমে গেছে। এর ফলে দেশটির অর্থনৈতিক খাতে আর্থিক সংকট প্রকট আকার ধারণ করেছে।

এ অবস্থার কারণে চলতি মাসের প্রথম সপ্তাহে দেশটির সরকার অর্থনৈতিক জরুরি অবস্থা ঘোষণা করেছে।

১৯৯৭ সাল থেকে প্রতি ডলারের বিপরীতে লিবানিজ মুদ্রা এক হাজার ৫০০ লিরা থাকলেও কয়েক সপ্তাহে বেড়ে তা এক হাজার ৬৫০ লিরাতে গিয়ে পৌঁছেছে।সেপ্টেম্বরের প্রথম সপ্তাহ থেকেই ডলারের সংকট প্রকট আকার ধারণ করেছে লেবাননে।এ অবস্থা আরও প্রকট হতে পারে বলে দেশটির অর্থনীতিবিদরা আশঙ্কা করছেন।

অর্থনীতিবীদ ড. মাকরাম রাবাহ বলেছেন, ‘সিরিয়ার বাজারে জ্বালানি নিশ্চিত করতে লেবাননের কিছু কালোবাজারী বাজার থেকে ডলার কিনে মজুদ করেছেন।যে কারণে লেবাননে ডলারের সংকট বেড়ে গেছে।ব্যাংকসহ এটিএম বুথগুলো থেকেও গ্রাহকদের ডলার দেওয়া হচ্ছে না।’

এদিকে, ডলার সংকটে জ্বালানিসহ বিভিন্ন পণ্যের দাম ঊর্ধ্বগতিতে গিয়ে ঠেকেছে।ডলার সংকটে সবচেয়ে বড় সমস্যায় সম্মুখীন হচ্ছেন দেশটিতে বসবাসরত বাংলাদেশিরা। লেবানিজ মালিকরা সর্বদা ডলারে বেতন পরিশোধ করলেও বর্তমানে কেউ ডলারে বেতন দিনে নারাজ।

সংকটের আগে একজন প্রবাসী লিরাকে ডলারে রূপান্তরিত করতে প্রতি ১০০ শত ডলারে যেখানে এক ডলার দিতে হতো। সেখানে ৫ থেকে ৬ ডলার বেশি দিতে হচ্ছে।অনেকে আবার বেশি দিয়েও ডলার পাচ্ছেন না।

ডলার সংকটে মানিট্রান্সফারে মাধ্যমে দেশে টাকা পাঠাতে হলে ডলারের বিপরীতে কয়েক গুণ বেশি ফি দিতে টাকা পাঠাতে হচ্ছে দেশে।ফলে প্রবাসীরা দেশে পরিবারের নিকট সময়মত টাকা পাঠাতে পারছেন না।যারা বিভিন্ন কোম্পানিতে সীমিত বেতনে কাজ করেন তারা পড়েছেন সবচেয়ে বেশি বিপাকে।

বেশ কয়েকজন প্রবাসী জানান, দীর্ঘদিনের প্রবাস জীবনে এই প্রথম ডলার সংকটে আমরা খুবই অস্বস্তিতে পড়েছি। দ্রুত এই সমস্যার সমাধান না হলে আমরা মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হবো।

ডলার সংকট নিয়ে দেশটিতে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত আব্দুল মোতালেব সরকার বলেন, ‘‌ডলার সংকটের কারণে আমাদের শ্রমিক ভাইদের ওপর ব্যাপক প্রভাব পড়তে পারে।তবে আমরা পরিস্থিতি গভীরভাবে পযবেক্ষণ করে বাংলাদেশ সরকারকে অবহিত করব।’

এদিকে, অর্থনৈতিক সংকটের কারণে কয়েকশ লেবানিজ দেশটির রাজধানী এবং অন্যান্য অঞ্চলে রোববার গাড়ির টায়ার জ্বালিয়ে প্রধান সড়কগুলোতে বিক্ষোভ মিছিল করেছেন।

advertisement