advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

স্বামীর ঝুলন্ত লাশের পাশেই স্ত্রীর লাশ

রংপুর প্রতিনিধি
৯ অক্টোবর ২০১৯ ০০:০০ | আপডেট: ৯ অক্টোবর ২০১৯ ০০:০৭
advertisement

ঘরের ভেতর থেকে দরজা বন্ধ। মেয়ের চিৎকারে এলাকাবাসী দরজা ভেঙে ঘরে ঢুকে দেখেন স্বামীর ঝুলন্ত লাশের পাশেই পড়ে আছে স্ত্রীর লাশ। গতকাল মঙ্গলবার দুপুর ১২টার দিকে দুজনের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। ঘটনাটি ঘটেছে রংপুরের গঙ্গাচড়ায় গজঘণ্টা ইউনিয়নের ওমর বালাটারি গ্রামে।

এলাকাবাসী ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, ওই গ্রামের সাবের আলী (৫০) ও তার স্ত্রী মুক্তারা বেগম বেগমের ১৫ বছর আগে বিয়ে হয়। তাদের ঘরে দুই মেয়ে এক ছেলেসন্তান রয়েছে। এক ছেলে এবং এক মেয়ে নানির বাড়িতে ছিল। গতকাল মঙ্গলবার বেলা ১১টার দিকে তাদের বড় মেয়ে নবম শ্রেণির ছাত্রী সাথী বেগম কোচিং শেষে বাড়ি ফিরে ঘরের দরজা বন্ধ দেখতে পায়। ধাক্কা-ধাক্কির পর দরজা না খোলায় চিৎকার করলে আশপাশের লোকজন জড়ো হয়। লোকজন দরজা খুলে দেখতে পায় ঘরের তিরের সঙ্গে ঝুলছে সাবেরের গলায় ওড়না পেঁচানো দেহ। পাশেই পড়ে আছে তার স্ত্রী মুক্তারা বেগমের লাশ। পরে পুলিশে খবর দিলে পুলিশ এসে লাশ উদ্ধার করে।

এলাকবাসী জানান, স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে

পারিবারিক কলহ ছিল। এ কারণেই স্ত্রীকে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে হত্যার পর ওই ওড়না গলায় জড়িয়ে সাবের আলীও আত্মহত্যা করেছে।

তবে গঙ্গাচড়া থানার ওসি মশিউর রহমান বলেছেন, স্বামীর আত্মহত্যার বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া গেলেও স্ত্রীকে হত্যা না আত্মহত্যা করেছে বিষয়টি এখনো নিশ্চিত করা যায়নি। লাশ দুটির সুরতহাল শেষে ময়নাতদন্তের জন্য রমেক হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

advertisement