advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

জড়িতদের সর্বোচ্চ শাস্তি পেতে হবে

৯ অক্টোবর ২০১৯ ০১:৫৭
আপডেট: ৯ অক্টোবর ২০১৯ ০১:৫৭
advertisement

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদকে পিটিয়ে হত্যার ঘটনায় প্রচ- ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। জড়িতদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়ার হুশিয়ারি দিয়ে তিনি বলেছেন, ‘যারা মর্মান্তিক এ ঘটনা ঘটিয়েছে তাদের কাউকেই ছাড় দেওয়া হবে না, শাস্তি পেতেই হবে। এ ঘটনা কোনো ষড়যন্ত্রের অংশ কীনা, তা খোঁজারও নির্দেশ দিয়েছি। আর তদন্ত প্রক্রিয়া কেউ যাতে বাধাগ্রস্ত করতে না পারে, সে জন্য সবাইকে সতর্ক থাকতে হবে। দোষীদের
সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিত করারও নির্দেশ দিয়েছি।’ গতকাল মঙ্গলবার রাতে গণভবনে দলের নেতাদের সঙ্গে এক অনির্ধারিত বৈঠকে আওয়ামী লীগ সভাপতি এ কথা বলেন। গণভবনে উপস্থিত একাধিক নেতা আমাদের সময়কে তা নিশ্চিত করেছেন।
বৈঠক সূত্রে জানা গেছে, ফাহাদ হত্যাকা-কে খুবই সিরিয়াসলি নিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। পুরো সময় তিনি অত্যন্ত মর্মাহত ছিলেন। শেখ হাসিনা বলেনÑ ‘কারা এ ঘটনা ঘটিয়েছে, কাদের নির্দেশে এটা হয়েছেÑ সব খুঁজে বের করা হবে। খবরটি শোনার সঙ্গে সঙ্গেই আমি আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে অভিযুক্তদের গ্রেপ্তারের নির্দেশ দিয়েছি। ইতোমধ্যে অনেককে আটকও করা হয়েছে।’ ফাহাদ হত্যাকা-ের একদিন পর বুয়েটের উপাচার্যের ক্যাম্পাসে উপস্থিতি নিয়েও উষ্মা প্রকাশ করেছেন সরকারপ্রধান, ‘উনি কেমন ভিসি? একটা ছাত্র মারা গেল আর এতটা সময় তিনি ক্যাম্পাসের বাইরে ছিলেন।’ পাশাপাশি এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় কেউ যাতে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি সৃষ্টি করতে না পারে, সে জন্যও সবাইকে সতর্ক থাকার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।
বৈঠকে আওয়ামী লীগের মেয়াদোত্তীর্ণ সহযোগী সংগঠনের সম্মেলনের বিষয়েও আলোচনা হয়। কিন্তু কোনো তারিখ চূড়ান্ত হয়নি বলে জানিয়েছেন বৈঠকে থাকা একাধিক নেতা। প্রায় ঘণ্টাখানেকের ওই বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফ, জাহাঙ্গীর কবির নানক, আবদুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, বিএম মোজাম্মেল হক, খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, একেএম এনামুল হক শামীম, মুহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয়, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য প্রমুখ।
এদিকে আবরার ফাহাদ হত্যাকা-সহ সার্বিক বিষয়ে আজ বুধবার বেলা ১১টায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মধুর ক্যান্টিনে ছাত্রলীগ সংবাদ সম্মেলন করবে বলে জানিয়েছেন সংগঠনের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয়। তিনি রাতে আমাদের সময়কে বলেন, ‘নেত্রীর নির্দেশনা সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমেই আমরা জানাব। ছাত্রলীগে কোনো অপরাধীর স্থান নেই। অপরাধী যেই হোক, শাস্তি তাকে পেতেই হবে। এ বিষয়ে কোনো ছাড় দেওয়া হবে না।’
বুয়েটের তড়িৎ ও ইলেকট্রনিক প্রকৌশল বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের (১৭তম ব্যাচ) ছাত্র ছিলেন ফাহাদ। শেরেবাংলা হলের নিচতলায় ১০১১ নম্বর কক্ষে থাকতেন। গত রবিবার রাতে তাকে পিটিয়ে হত্যা করেন বুয়েট ছাত্রলীগের একদল নেতাকর্মী। এরই মধ্যে বুয়েট শাখা ছাত্রলীগের ১০ নেতাকর্মীকে গ্রেপ্তার করে রিমান্ডে নিয়েছে পুলিশ।

advertisement