advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

জাতীয় লিগ শুরু আজ

ক্রীড়া প্রতিবেদক
১০ অক্টোবর ২০১৯ ০০:০০ | আপডেট: ১০ অক্টোবর ২০১৯ ০০:১৫
advertisement

আগামী মাসেই ভারত সফরে আইসিসি বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ শুরু হবে বাংলাদেশের। এ সফরের আগে জাতীয় ক্রিকেট লিগে (এনসিএল) নিজেদের ঝালিয়ে নেওয়ার সুযোগ পাচ্ছে টাইগাররা। আজ থেকে শুরু হচ্ছে এনসিএলের একুশতম আসর। উদ্বোধনী দিনে চারটি ম্যাচ রয়েছে। প্রথম স্তরের ম্যাচে ফতুল্লার খান সাহেব ওসমান আলী স্টেডিয়ামে ঢাকা-রাজশাহী এবং খুলনার শেখ আবু নাসের স্টেডিয়ামে খুলনা-রংপুর খেলবে। দ্বিতীয় স্তরের ম্যাচে রাজশাহীর শহীদ কামরুজ্জামান স্টেয়িামে বরিশাল-সিলেট এবং মিরপুরের শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ঢাকা মেট্রো-চট্টগ্রাম পরস্পরের মুখোমুখি হবে। চারটি ম্যাচই সকাল সাড়ে ৯টায় শুরু হবে। এবারের এনসিএল আসরে জাতীয় দলের ক্রিকেটারদের খেলা বাধ্যতামূলক করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। আগে থেকেই বলা হচ্ছেÑ ভারত সফরের আগে জাতীয় দলের খেলোয়াড়দের জন্য প্রস্তুতিমূলক টুর্নামেন্ট এটি। দেশের প্রথম শ্রেণির এ ক্রিকেট টুর্নামেন্টকে আকর্ষণীয় করে তুলতে নানা উদ্যোগও নেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে খেলোয়াড়দের ফিটনেসের ব্যাপারে কঠোর হয়েছে বিসিবি। আগে বিপ টেস্টে ৯ পেলেই এ টুর্নামেন্টে খেলার সুযোগ মিলত। সেটি বাড়িয়ে এবার করা হয়েছে ১১। তাই ৩০ বছর পেরিয়ে যাওয়া ক্রিকেটারদের এ ফিটনেস পরীক্ষার চ্যালেঞ্জ জয় করতে হচ্ছে। টুর্নামেন্টের শুরু থেকেই জাতীয় দলের সিংহভাগ খেলোয়াড় অংশ নিচ্ছেন। তবে বর্তমানে ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগ খেলছেন সাকিব আল হাসান। শ্রীলংকায় ‘এ’ দলের হয়ে খেলছেন মোহাম্মদ মিঠুন, নাজুমল হোসেন শান্ত, আবু জায়েদ রাহী, আবু হায়দাররা।

বিশ্বকাপ ও শ্রীলংকা সফরে ফরমহীন থাকায় স্বেচ্ছায় বিশ্রামে গিয়েছিলেন তামিম ইকবাল। নিজেকে স্বরূপে ফিরে পেতে অনেক প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন এই ওপেনার। জাতীয় লিগে জ্বলে উঠতে চাইবেন তিনি। তামিম চট্টগ্রামের হয়ে খেললেও দলটির নেতৃত্বের ভার মুমিনুল হকের কাঁধে। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের জন্য ঘরোয়া টুর্নামেন্টে খেললে আত্মবিশ্বাস কাজে দেবে। এমনটা মনে করেন মুমিনুলও। তিনি বলেন, চার দিনের ম্যাচ সব সময়ই গুরুত্বপূর্ণ, আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলতে গেলেও এটা বেশ কাজে দেয়। আমি যেমন টেস্ট খেলিÑ তাই এনসিএল, বিসিএল বলেন, চার দিনের কোনো ম্যাচই আমি মিস দেই না। প্রস্তুতিটা নিজের ওপর যদি গুরুত্বের সঙ্গে নেন। তবে এখানেই ভালো প্রস্তুতি নেওয়া সম্ভব। তামিমের কাছে প্রত্যাশা কী থাকবে? মুমিনুল জানান, না তামিম ভাইয়ের কাছে প্রত্যাশা বেশি নেই। প্রত্যাশা বেশি হলে সমস্যা। তিনি তার যতটুকু খেলার সামর্থ্য সেটা দিলেই হবে। আর যে দিন তিনি খেলবেন সেদিন অন্য কারও কিছু করা লাগবে নাÑ এটা আমিও জানি আপনারাও জানেন। কোচ হিসেবে চট্টগ্রাম দলের ডাগআউটে থাকবেন সাবেক ক্রিকেটার আফতাব আহমেদ। চট্টগ্রামের বিপক্ষে নিজেদের মেলে ধরতে চাইবে ঢাকা মেট্রো। এ দলটির হয়ে খেলছেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ।

advertisement