advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

র‌্যাগিংয়ের নামে চলছে নির্যাতন

নিজস্ব প্রতিবেদক
১১ অক্টোবর ২০১৯ ০০:০০ | আপডেট: ১০ অক্টোবর ২০১৯ ২৩:৪৪
advertisement

শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছেন, ‘দেশের সব বিশ্ববিদ্যালয়ে র‌্যাগিং বা বুলিংয়ের নামে শিক্ষার্থীদের ওপর নির্যাতন করা হচ্ছে। বুয়েটের একজন শিক্ষার্থীকে প্রাণ হারাতে হয়েছে। এ কারণে বুয়েটের মতো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে আজ অস্থির অবস্থা বিরাজ করছে। যে কোনোভাবে বিশ্ববিদ্যালয়ে এসব র‌্যাগিং বা বুলিং বন্ধ করা হবে।’ গতকাল রাজধানীর

বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব বিজনেস অ্যান্ড টেকনোলজির (বিইউবিটি) চতুর্থ সমাবর্তন অনুষ্ঠানে শিক্ষামন্ত্রী এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয়ে র‌্যাগিং বা বুলিংয়ের নামে শিক্ষার্থীদের ওপর শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন করা হয়। এটি একটি বড় সমস্যা, যে কোনোভাবে এটি বন্ধ করা হবে।’ তিনি বলেন, ‘র‌্যাগিং বন্ধ করা সরকারের একার পক্ষে সম্ভব নয়। দল-মত নির্বিশেষে এ নির্যাতন বন্ধে সবাইকে সামাজিক আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে।’ পরিবার থেকেও এ বিষয়ে শিক্ষা দেওয়ার আহ্বান জানান মন্ত্রী।

দীপু মনি বলেন, ‘বর্তমানে দেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে অস্থির অবস্থা বিরাজ করছে। এর পেছনে কোথায় আমাদের সমস্যা থেকে যাচ্ছে, তা বের করতে হবে। নিজের মত প্রকাশ করায় দেশের শীর্য পর্যায়ের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বুয়েটে আবরার নামে একজন শিক্ষার্থী প্রাণ হারিয়েছে। এ ঘটনায় আমি শোকাহত, মর্মাহত, ব্যথিত।’

এদিকে গতকাল রাজধানীর আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউটে আয়োজিত এক অনুষ্ঠান শেষে বুয়েটের ভিসির পদত্যাগ বিষয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) চলমান অস্থিরতা বুয়েট প্রশাসনের মাধ্যমে নিরসন করতে হবে। সরকারের পক্ষ থেকে কোনো কিছু চাপিয়ে দেওয়া হবে না। বুয়েট উপাচার্যের পদত্যাগ করা না করা শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের ওপর নির্ভর করে না। এটি সরকারের উচ্চপর্যায়ের সিদ্ধান্তের বিষয়।’

চলমান পরিস্থিতিতে বুয়েট উপাচার্যের পদত্যাগের বিষয়ে জানতে চাইলে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘উপাচার্যের আর কয়েক মাস মেয়াদ রয়েছে। শিক্ষার্থীদের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে তাকে সরানো হবে কি হবে না, সেটি সরকারের উচ্চপর্যায়ের সিদ্ধান্ত। এ বিষয়ে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কিছু করণীয় নেই।’

advertisement