advertisement
Azuba
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

দুর্যোগ মোকাবিলায় বাংলাদেশ রোল মডেল : প্রধানমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক
১৪ অক্টোবর ২০১৯ ০০:০০ | আপডেট: ১৩ অক্টোবর ২০১৯ ২৩:৪৮
advertisement

প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা বলেছেন, প্রাকৃতিক ও মানুষের সৃষ্টিÑ যে কোনো ধরনের দুর্যোগ মোকাবিলায় বাংলাদেশ সবসময় প্রস্তুত। বন্যা, খরা, ঘূর্ণিঝড়, ভূমিকম্প, অগ্নিনির্বাপণের মতো দুর্যোগে ক্ষতি যাতে হ্রাস পায় গৃহীত ব্যবস্থা নেওয়ায় আন্তর্জাতিকভাবে প্রশংসিত হয়েছে। বাংলাদেশ এখন দুর্যোগ মোকাবিলায় অগ্রগামী

ভূমিকা রাখছে। গতকাল বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলনকেন্দ্রে আন্তর্জাতিক দুর্যোগ প্রশমন দিবস ২০১৯-এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

বাংলাদেশে গ্লোবাল অ্যাডাপটেশন অফিস স্থাপনের ঘোষণা দেওয়া হয়েছে উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, বিশ্বে এখন আমরা শুধু উন্নয়নের রোল মডেল না, প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবিলাতেও বিশ্বে বাংলাদেশ রোল মডেল, সে সম্মান পেয়েছে। এ সময় জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব মোকাবিলায় নিজস্ব অর্থায়নে তহবিল গঠন করা এবং বিভিন্ন প্রকল্প বাস্তবায়নের কথা তুলে ধরেন তিনি। এ ছাড়া ১৯৯১ সালের ঘূর্ণিঝড়ে ক্ষতি এবং তখনকার সরকারের উদাসীনতার কথা উল্লেখ করে সমালোচনাও করেন তিনি।

শেখ হাসিনা জানান, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ঘূর্ণিঝড় থেকে জনগণের জানমাল রক্ষায় ১৭২টি সাইক্লোন শেল্টার নির্মাণ করেন। স্থানীয় লোকজন এর নাম দিয়েছিলেন মুজিব কেল্লা। অনুষ্ঠানে নবনির্মিত ১০০ ঘূর্ণিঝড় আশ্রয়কেন্দ্র ও ১১৬০৪টি দুর্যোগসহনীয় বাড়ি উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী।

দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী এনামুর রহমান এবং মন্ত্রণালয়ের জ্যেষ্ঠ সচিব শাহ কামাল অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন। ঘূর্ণিঝড় প্রস্তুতির জন্য সেরা ৮২ স্বেচ্ছাসেবকের মধ্যে তিনজনের হাতে পুরস্কার তুলে দেন শেখ হাসিনা।

১৯৯৭ সালে দুর্যোগবিষয়ক স্থায়ী আদেশাবলি প্রণয়ন এবং ২০১০ সালে তা হালনাগাদ, ২০১২ সালে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা আইন প্রণয়ন, ২০১৫ সালে ন্যাশনাল ইমার্জেন্সি অপারেশন সেন্টার (এনইওসি) প্রতিষ্ঠার কথা তুলে অনুষ্ঠানে ধরেন প্রধানমন্ত্রী। বলেন, বাংলাদেশ নামের ব-দ্বীপকে টিকিয়ে রাখা এবং জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে যাতে এটি ক্ষতিগ্রস্ত না হয়, সে লক্ষ্যে ইতোমধ্যে ডেল্টা প্ল্যান-২১০০ প্রণয়ন করা হয়। বাংলাদেশ যে স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণ করেছে, সেখান থেকেও দুর্যোগকালীন সুবিধা নেওয়ার কথা বলেন শেখ হাসিনা।

advertisement