advertisement
Azuba
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

মুক্তির পথ দেখাবে আ’লা হযরতের জীবন-দর্শন

চট্টগ্রাম ব্যুরো
১৪ অক্টোবর ২০১৯ ০০:০০ | আপডেট: ১৩ অক্টোবর ২০১৯ ২৩:৪৮
advertisement

আ’লা হযরত ইমাম আহমদ রেযার (র) জীবন-দর্শন মানবতার মুক্তির পথ দেখাবে। তিনি কোরআন, হাদিস, তাফসির, ফিকাহশাস্ত্র, ধর্মতত্ত্ব, সূফিতত্ত্ব, ভাষাতত্ত্ব¡, রাজনীতি, অর্থনীতি ও সমাজনীতিসহ জ্ঞানবিজ্ঞানের প্রতিটি শাখায় বিচরণ করেছেন। তাই তার জীবন-দর্শনের ওপর ব্যাপক চর্চা ও গবেষণা প্রয়োজন।

গতকাল রবিবার সন্ধ্যায় নগরীর জিইসি কনভেনশন সেন্টারে আ’লা হযরত ফাউন্ডেশন বাংলাদেশের উদ্যোগে কনফারেন্সে বক্তরা এসব কথা বলেন। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন

মিসরের আল-আজহার বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিন প্রফেসর ড. মুহাম্মদ জামাল ফারুক জিবরিল মাহমুদ আদদাক্কাক। কনফারেন্সে সভাপতিত্ব করেন পিএইচপি ফ্যামিলির চেয়ারম্যান আলহাজ সূফী মোহাম্মদ মিজানুর রহমান।

ড. মুহাম্মদ জামাল ফারুক জিবরিল মাহমুদ আদদাক্কাক বলেন, ইসলামের প্রচার-প্রসার ও শান্তিপূর্ণ সমাজ প্রতিষ্ঠার প্রয়োজনে আ’লা হয়রত ইমাম আহমদ রেযার (র) জীবন-দর্শনের ব্যাপক চর্চা ও গবেষণা প্রয়োজন। তার ত্রিশ খ-ের ফতওয়া গ্রন্থ ‘ফাতওয়ায়ে রেজভীয়্যাহ’ ইসলামের শ্রেষ্ঠত্বের এক প্রামাণ্য দলিল। ইসলামের মূল স্রোত সুন্নি দর্শনকে নিয়েই তার জ্ঞান গবেষণার জগৎ বিনির্মিত। হুব্বে রাসুল তথা নবী প্রেমই ছিল তার জীবন সাধনার মূল উপজীব্য। তিনি সুন্নি ঐক্যের প্রতীক, সুন্নিয়াত ভিত্তিক সমাজ প্রতিষ্ঠার স্বপ্নদ্রষ্টা। মুসলিম উম্মাহর এ ক্রান্তিকালে সংকট উত্তরণে তার জীবন-দর্শনের যথার্থ অনুসরণ জাতিকে সঠিক পথের দিশা দেবে।

শ্রীলংকার আন্তর্জাতিক ইসলামিক স্কলার আল্লামা এহসান ইকবাল কাদেরী বলেন, বিশ্বব্যাপী ইসলামের সঠিক রূপরেখা আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাতের প্রচার-প্রসারে যুগে যুগে যেসব মহান মনীষী বিশ্বের সুনিী জনতার কাছে চিরস্মরণীয় ও বরণীয় হয়ে আছেন, তাদের মধ্যে হিজরি চতুর্দশ শতাব্দীর মুজাদ্দিদ আ’লা হযরত ইমাম আহমদ রেযা (র) অন্যতম।

ভারতের আল্লামা মুহাম্মদ শাখাওয়াত হোসাইন বরকাতী বলেন, মোগল সম্রাট আকবরের দ্বীনে ইলাহির মাধ্যমে উপমহাদেশের মুসলমানদের ধর্মীয় অঙ্গনে যে ফিতনা-ফাসাদের সৃষ্টি হয়েছিল, মুজাদ্দিদে আলফেসানী (র) তার অসাধারণ ব্যক্তিত্ব ও কর্মপ্রচেষ্টার দ্বারা এ বিরাট ফিতনা থেকে উপমহাদেশের মুসলমানকে রক্ষায় এগিয়ে আসেন। ঠিক একই ধারায় ইমাম আহমদ রেযা (র) ইংরেজ শাসন-শোষণের দুর্যোগপূর্ণ মুহূর্তে এতদঞ্চলের মুসলমানদের ইমান, আকিদা, রাজনীতি, অর্থনীতি প্রভৃতি অঙ্গনে যে বিপ্লবী ভূমিকা পালন করেছেন, তা আজ এক ঐতিহাসিক সত্যে পরিণত হতে চলছে।

কনফারেন্সের উদ্বোধক ছিলেন আনজুমান ট্রাস্টের সিনিয়র সহ-সভাপতি মোহাম্মদ মহসিন। বিশেষ অতিথি ছিলেন জামেয়া আহমদিয়া সুন্নিয়া আলিয়ার অধ্যক্ষ আল্লামা মুফতি সৈয়্যদ মুহাম্মদ অসিয়র রহমান, উপাধ্যক্ষ ড. আল্লামা লিয়াকত আলী, অধ্যক্ষ খায়রুল বশর হক্কানী।

আলোচনায় অংশ নেন-আল্লামা এম এ মান্নান, শায়খুল হাদিস আল্লামা কাযী মুহাম্মদ মঈনুদ্দিন আশরাফী, জমিয়তুল ফালাহ্র খতিব কারি আবু তালেব মুহাম্মদ আলাউদ্দিন, স উ ম আবদুস সামাদ, অ্যাডভোকেট মোছাহেবউদ্দিন বখতিয়ার, ড. মাওলানা মুহাম্মদ জাফরউল্লাহ, আল্লামা আশরাফুজ্জামান আলকাদেরী, মাওলানা নুর মোহাম্মদ আলকাদেরী, অধ্যাপক মাসুম চৌধুরী, শাহজাদা ইরফানুল হক, শাহজাদা এহছানুল করীম ইছাপুরী, উপাধ্যক্ষ জুলফিকার আলী, মাওলানা জালালউদ্দিন আজহারী, অধ্যক্ষ মুহাম্মদ আবু তালেব বেলাল, ড. আবদুুল মাবুদ, ড. খলিলুর রহমান, আলহাজ মুফতি এ এস এম জালালউদ্দিন ফারুকী। অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন আ’লা হযরত ফাউন্ডেশনের সভাপতি অধ্যক্ষ মুহাম্মদ বদিউল আলম রেজভি ও অর্থ সম্পাদক মুহাম্মদ এরশাদ খতিবি।

advertisement