advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

বাংলাদেশ-ভারত যেখানে সমান সমান

ক্রীড়া প্রতিবেদক
১৫ অক্টোবর ২০১৯ ১৫:৫১ | আপডেট: ১৫ অক্টোবর ২০১৯ ১৭:১৩
অনুশীলনে বাংলাদেশ ফুটবল দল। ছবি : বাফুফে।
advertisement

কাতার ফুটবল বিশ্বকাপের বাছাইয়ে আজ রাতে ভারতের মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ। শক্তি কিংবা যোগ্যতায় সব দিক থেকেই যোজন যোজন এগিয়ে ভারত। অনেক এগিয়ে থাকলেও একটি জায়গায় দুই দলই সমান। এটি আজ রাতে জামাল ভূঁইয়াদের জন্য হতে পারে জয়ের টনিকও।

বিশ্বকাপ বাছাইয়ের দ্বিতীয় রাউন্ডের ই গ্রুপ থেকে লড়াইয়ে নামবে বাংলাদেশ-ভারত। এই গ্রুপের অন্য দলগুলো হলো কাতার, ওমান ও আফগানিস্তান। এই গ্রুপ থেকে এখন পর্যন্ত দুই ম্যাচে খেলে একটি ম্যাচেও জয় পায়নি বাংলাদেশ ও ভারত। দুই দল পয়েন্ট টেবিলে অবস্থান করছেন যথাক্রমে চার ও পাঁচে। সাত পয়েন্ট নিয়ে সবার শীর্ষে আছে কাতার, তার পরে যথাক্রমে ওমান ও আফগানিস্তান।

এদিক থেকেই হয়ত ভারতকে ফেভারিট বলে বাংলাদেশ অধিনায়ক জামাল ভূঁইয়া বলেছেন কোনো চাপ অনুভব করছেন না। তার মতে চাপটা ভারতের ওপর।

এই ম্যাচকে সামনে রেখে জামাল বলেন, ‘কোনো চাপ অনুভব করছি না। আমি ব্যক্তিগতভাবে তো মোটেই না। আমি মনে করি চাপটা ভারতের ওপর। তারা যদি ভালো খেলতে না পারে তা হলে দর্শকরা তাদের বিপক্ষে চলে যাবে। আমি সবাইকে বলেছি, তোমরা ম্যাচটি উপভোগ করো। এমন সুযোগ সব সময় আসে না। তিন পয়েন্ট তাড়া করো। আর ভারত অবশ্যই ফেভারিট এটা মিথ্যে নয়।’

এর আগেও কাতার ম্যাচের আগে সতীর্থদের বার্তা দিয়েছিলেন খেলাটাকে উপভোগ করার জন্য। ‘আমি আমার সতীর্থদের বলি ভয় পাওয়ার কিছু নেই। সবাই ভুল করে। আমি তাদেরকে বলি মাঠে যাও এবং খেলাটাকে উপভোগ করো’-সতীর্থদের উজ্জীবিত করতে এভাবেই বলেছিলেন জামাল।

নিজেদের চাপের কথা স্বীকারও করে নিয়েছেন প্রতিপক্ষের অধিনায়ক সুনীল ছেত্রী। তিনি বলেন, ‘আমরা ফেভারিট এবং এটাই আমাদের চাপ। ছেলেদের সেই চাপ কাটানোর চেষ্টা করছি। যে কোনো ফুটবল ম্যাচেই একটা দল ফেভারিট হয়। কিন্তু ফেভারিট দল সব সময় জেতে না।’

এখন পর্যন্ত ২৮ বারের দেখায় ভারতের বিপক্ষে বাংলাদেশ জিতেছে মাত্র তিনটি ম্যাচে। ভারত জয় পেয়েছে ১৫টি ম্যাচে। আর ড্র হয়েছে ১০টি ম্যাচ।

কলকতার যুবভারতী স্টেডিয়ামে ভারতের মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ। প্রায় ৮৭ হাজার দর্শকদের সামনে স্বাগতিকদের মুখোমুখি হবেন লাল সবুজের প্রতিনিধিরা। টিভির পর্দায় চোখ থাকবে দুই দেশের কোটি-কোটি মানুষের। ম্যাচটি সরাসরি দেখা যাবে ভারতের স্টার স্পোর্টস ওয়ান ও বাংলাদেশের বাংলা টিভিতে।

advertisement