advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

মাতলামি করলেই গ্রামবাসীকে খাওয়াতে হবে ছাগলের মাংস!

অনলাইন ডেস্ক
১৯ অক্টোবর ২০১৯ ১৬:১৪ | আপডেট: ১৯ অক্টোবর ২০১৯ ১৬:১৪
প্রতীকী ছবি
advertisement

মাতলামি ঠেকাতে নানা জায়গায় নানা শাস্তির বিধান রয়েছে। তবে মাতলামি করলে পুরো গ্রামবাসীকে ছাগলের মাংস খাওয়ানোর শাস্তি অভিনবই বটে। এমন অভিনব শাস্তির বিধান চালু করেছে ভারতের গুজরাটের বনসকণ্ঠার খাতিসিতারা গ্রামে।  

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম সংবাদ প্রতিদিন’র খবরে বলা হয়, আদিবাসী অধ্যুষিত ওই গ্রামের বেশিরভাগ মানুষই মদ্যপান করতেন। ২০১৩-১৪ সালে মদ্যপান করে এ গ্রামের বহু মানুষ মারা যান। এরপর ওই গ্রামবাসী মদ্যপানের ভয়াবহতার কথা বুঝতে পারেন। তারা বুঝতে পারেন যে, নেশার কুপ্রভাবে প্রায় নষ্ট হয়ে যাচ্ছে সব কিছু। মদ্যপানের কারণেই ঘরে ঘরে অশান্তি বাড়ছে। এ ছাড়া মদ্যপানের কারণেই খুন, মারামারির মতো ঘটনাও ঘটছে। ওই ঘটনা থেকে শিক্ষা নেন গ্রামটির সাধারণ মানুষ। এরপর রীতিমতো আইন করে মদ্যপান বন্ধের দাবি তোলেন তারা।

খিমজি দুনগাইসা নামে গ্রামের এক অধিবাসী বলেন, ‘মদ্যপ ব্যক্তির কাছ থেকে ২ হাজার টাকা জরিমানা নেওয়া হয়। যারা মদ্যপানের পর অশান্তি করে তাদের কাছ থেকে ৫ হাজার টাকা জরিমানা নেওয়া হয়। জরিমানার পাশাপাশি গ্রামের ৭৫০ থেকে ৮০০ জন বাসিন্দাকে খাওয়াতে হয় ছাগলের মাংস। তাতেই কমবেশি ২০ হাজার টাকার মতো খরচ হয় মাতালদের।’

জরিমানা চালুর পর থেকেই গ্রামটিতে মদ্যপদের সংখ্যা কমছে। গ্রামবাসীদের একাংশের দাবি, এ শাস্তি চালুর পর থেকে প্রতি বছর গ্রামে দু-চারজন মদ্যপকে দেখতে পাওয়া যায়, যে সংখ্যা আগে অনেক বেশি ছিল। ২০১৮ সালে মাত্র একজনের মদ্যপের জরিমানা হয়েছিল।

advertisement