advertisement
Azuba
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

সীতাকুণ্ডের সেই লাশটি ডাক্তার শাহ আলমের

নিজস্ব প্রতিবেদক ঢাকা ও সীতাকু- প্রতিনিধি
২০ অক্টোবর ২০১৯ ০০:০০ | আপডেট: ২০ অক্টোবর ২০১৯ ১০:৩৩
বিশিষ্ট শিশু রোগ বিশেষজ্ঞ ডা. মো. শাহ আলম
advertisement

ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের সীতাকু- উপজেলার কুমিরা বাইপাস সড়কের পাশে গত শুক্রবার উদ্ধার হওয়া লাশটি বিশিষ্ট শিশু রোগ বিশেষজ্ঞ ডা. মো. শাহ আলমের। দীর্ঘ ৩০ বছর সৌদি আরবের একটি হাসপাতালে বিশেষজ্ঞ শিশু চিকিৎসক হিসেবে কর্মরত ছিলেন তিনি। তাকে সড়ক-ডাকাতরা হত্যা করেছে বলে ধারণা করছে পুলিশ। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছবি দেখে শুক্রবার রাত ৯টায় থানার সঙ্গে যোগাযোগ করে হাসপাতালে গিয়ে লাশ শনাক্ত করেন স্বজনরা।

নিহত ডা. মো. শাহ আলম সীতাকু- উপজেলার কুমিরা ইউনিয়নের ছোটকুমিরা গ্রামের মরহুম মাস্টার আজিজুল হকের ছেলে। তাকে হত্যার ব্যাপারে গতকাল শনিবার পর্যন্ত এ বিষয়ে থানায় মামলা দায়ের করা হয়নি।

পুলিশ সূত্র জানায়, শুক্রবার সকাল ১০টার দিকে কুমিরা বাইপাস সড়কে ঢাকামুখী লেনের পাশে গাছপালার ভেতরে একটি লাশ দেখে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা পুলিশকে জানান। সীতাকু- থানার পুলিশ সেখানে গিয়ে লাশটি উদ্ধার করে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠায়।

স্থানীয় কুমিরা ইউপি চেয়ারম্যান মো. মোর্শেদুল আলম চৌধুরী জানান, ডা. শাহ আলম অত্যন্ত বড় মাপের একজন শিশু বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক ছিলেন। ৩০ বছর সৌদি আরবের একটি নামকরা হাসপাতালে বিশেষজ্ঞ শিশু চিকিৎসক হিসেবে কর্মরত ছিলেন।

চেয়ারম্যান মো. মোর্শেদ আরও বলেন, অত্যন্ত সম্ভ্রান্ত পরিবারের সন্তান ডা. শাহ আলমের স্বপ্ন ছিল দেশে এসে সাধারণ মানুষের শিশুদের চিকিৎসা করবেন। সে কারণে চট্টগ্রামের লাভলেনে তার বাসা হলেও তিনি নিজ গ্রাম ছোটকুমিরা বাজারে এসে গত বছর গড়ে তোলেন বেরি কেয়ার নামের ক্লিনিক। সেখানে মাত্র ৩শ টাকা ভিজিটে শিশুদের চিকিৎসা দিতেন তিনি। এভাবে সেবা দিতে গিয়ে তিনি প্রায়ই রাতে লোকাল গাড়িতে করে চট্টগ্রামে ফিরতেন। গত বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৯টার সময় তিনি ক্লিনিক থেকে চট্টগ্রাম ফিরতে সীতাকু--অলঙ্কার রুটের নাভানা পরিবহনের একটি লোকাল গাড়িতে উঠেন। গাড়িটি ছিল যাত্রীশূন্য। চেয়ারম্যানের ধারণা, নাভানার ভেতরেই গাড়িচালক ও হেলপাররা সব কিছু ছিনিয়ে নিয়ে শাহ আলমকে হত্যা করে থাকতে পারে। এ রুটে এর আগেও অনেকবার রাত ৯টা-১০টার পর ফাঁকা লোকাল গাড়িতে যাত্রীদের সর্বস্ব ছিনতাই করে খুনের ঘটনা ঘটেছে।

সীতাকু- থানার ওসি (তদন্ত) শামীম শেখ জানান, লাশটি উদ্ধারের পর রাতে ডা. শাহ আলমের বলে শনাক্ত হয়। গতকাল শনিবার পোস্টমর্টেম শেষে পরিবারের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে। তবে এখনো মামলা দায়ের করেনি পরিবার। তবে তারা যখনই আসবেন, তখনই মামলা রেকর্ড করা হবে বলেও জানান এই কর্মকর্তা।

খুনিদের গ্রেপ্তার দাবি ড্যাবের : শিশু বিশেষজ্ঞ ডা. মো. শাহ আলম হত্যায় জড়িতদের গ্রেপ্তারের দাবি জানিয়েছেন বিএনপিপন্থি চিকিৎসকদের সংগঠন ড্যাব। গতকাল শনিবার রাতে সংগঠনের সভাপতি অধ্যাপক ডা. হারুন আল রশিদ ও ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব ডা. মো. মেহেদী হাসান এক বিবৃতিতে এ দাবি জানান। তারা ডা. মো. শাহ আলম হত্যাকা-ের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে বলেন, বাংলাদেশে চিকিৎসকদের কর্মক্ষেত্রের পরিবেশ ইতোমধ্যেই চরম অনিরাপদ হয়ে গেছে।

advertisement