advertisement
Azuba
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

রাঙা জীবন

আমাদের সময় ডেস্ক
২০ অক্টোবর ২০১৯ ০০:০০ | আপডেট: ২০ অক্টোবর ২০১৯ ০০:২৩
advertisement

প্রত্যেক মানুষেরই নিজস্ব পছন্দ রয়েছে। কোনো রঙের প্রতি মানুষের বিশেষ আগ্রহটাও স্বাভাবিক। কিন্তু তাই বলে একটা রঙের প্রতি এমন মাত্রাতিরিক্ত প্রীতি বোধহয় বিরল। বসনিয়ার এক নারী তার পুরো জীবনটাকেই লাল রঙে সাজিয়ে রেখেছেন। তার পোশাক-পরিচ্ছদ, বাড়িঘর, প্লেট-বাটি থেকে শুরু করে সব কিছুতেই এ রঙ।

আর মৃত্যুর পরও তিনি ঠিক এভাবেই থাকতে চান।

গত চার দশক ধরে মাথা থেকে পা পর্যন্ত লাল রঙের পোশাক পরছেন ৬৭ বছর বয়সী জোরিকা। স্বামী জোরানের সঙ্গে বিয়েটাও হয়েছিল লাল রঙের গাউন পরেই। ভারত থেকে বিশেষ এক ধরনের লাল গ্রানাইট পাথর আমদানি করেছেন, কারণ নিজের এবং স্বামীর সমাধিস্তম্ভ তৈরি করতে এ পাথর ব্যবহার করা হবে।

জোরিকা একজন অবসরপ্রাপ্ত স্কুলশিক্ষক। তিনি বাস করেন একটি লাল বাড়িতে। খাবার খান লাল রঙের প্লেটে, পানীয় পান করেন লাল গ্লাসে। এমনকি ঘমানও লাল বিছানায়। জোরিকা তার চুলগুলোও লাল রঙে রাঙিয়েছেন। জোরিকা জানান, তার বয়স যখন ১৮ কি ১৯, তখনই আচমকা এ চিন্তা মাথায় আসে। তিনি ঠিক করেন যে তার বাড়ির সাজসজ্জা বা জামাকাপড়ে অবশ্যই অন্য কোনো রঙের একটি বিন্দুও থাকতে পারবে না। এ রঙ তার ভেতরে শক্তি আর ক্ষমতার বোধ জাগিয়ে তোলে বলে মনে করেন এ নারী।

যত মূল্যবানই হোক না কেন, কোনো উপহার লাল না হলে জোরিকা তা গ্রহণ করেন না। এমনকি শেষকৃত্যের অনুষ্ঠানেও ঐতিহ্যবাহী কালো রঙের পোশাক না পরে লাল রঙের পোশাক পরেন তিনি। তবে সমস্যা হলো, জোরিকা নতুন কিছু পরলে তার স্বামী তা টের পান না। কারণ সব কিছুই তার এক রকমই মনে হয়।

advertisement