advertisement
Azuba
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

ভাষাসৈনিক অলি আহাদের মৃত্যু

২০ অক্টোবর ২০১৯ ০০:০০
আপডেট: ২০ অক্টোবর ২০১৯ ০০:২৩
advertisement

অলি আহাদ [১৯২৭/২৮-২০১২] ভাষাসৈনিক, সংগঠক ও রাজনীতিবিদ। ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার ইসলামপুর গ্রামে তিনি জন্মগ্রহণ করেন। অলি আহাদ কৈশোর থেকেই রাজনৈতিক চিন্তাধারা ও আন্দোলনের সঙ্গে জড়িয়ে পড়েন। তিনি ছাত্রাবস্থায় মুসলিম জাতীয়তাবাদ ও মুসলিম বাসভূমি পাকিস্তান দাবির সক্রিয় কর্মী ছিলেন। ১৯৪৪ সালে ঢাকা কলেজ শাখা মুসলিম ছাত্রলীগের সভাপতি নির্বাচিত হন।

১৯৫২ সালের ২৭ জানুয়ারি খাজা নাজিমউদ্দীন উর্দুকে পাকিস্তানের একমাত্র রাষ্ট্রভাষা ঘোষণা করার পরিপ্রেক্ষিতে ৩০ জানুয়ারি সন্ধ্যায় মওলানা আবদুল হামিদ খান ভাসানীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় ‘সর্বদলীয় রাষ্ট্রভাষা সংগ্রাম পরিষদ’ গঠিত হয়। অলি আহাদ এ পরিষদের সদস্য নির্বাচিত হন। পরিষদ বাংলাকে রাষ্ট্রভাষা করার দাবিতে ২১ ফেব্রুয়ারি সারা পূর্ব পাকিস্তানে হরতাল, বিক্ষোভ, সভা ও মিছিলের আহ্বান করে। কিন্তু পাকিস্তানি সরকার ২০ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যা থেকে ১৪৪ ধারা জারি করে। সর্বদলীয় রাষ্ট্রভাষা সংগ্রাম পরিষদের অধিকাংশ সদস্য ১৪৪ ধারা ভঙ্গের বিরোধী ছিলেন। কিন্তু অলি আহাদ ও আবদুল মতিনসহ চারজন এ সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করেন। সর্বদলীয় রাষ্ট্রভাষা কমিটির সাধারণ সম্পাদক গোলাম মাহমুদ আন্দোলনের ব্যাপারে ভিন্নমত পোষণ করে সরে দাঁড়ান। এমন সংকটময় অবস্থায় অলি আহাদ আন্দোলনের নেতৃত্ব গ্রহণ করেন। তার পরামর্শেই ২২ ফেব্রুয়ারি রাতে প্রথম শহীদ মিনার নির্মিত হয়।

বাংলাদেশের স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধে অবদানের জন্য ২০০৪ সালে তাকে স্বাধীনতা পদক প্রদান করা হয়। ২০১২ সালের ২০ অক্টোবর মৃত্যু হয় এই সংগ্রামী পুরুষের।

advertisement