advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

ট্রেনে কাটা পড়ে বাবা-মেয়ে নিহত

নিজস্ব প্রতিবেদক,রাজশাহী
২১ অক্টোবর ২০১৯ ২০:৪৫ | আপডেট: ২১ অক্টোবর ২০১৯ ২২:০৯
প্রতীকী ছবি
advertisement

রাজশাহীতে ট্রেনে কাটা পড়ে বাবা ও মেয়ে নিহত হয়েছে। আজ সোমবার বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে মহানগরীর ভদ্রা জামালপুর রেলক্রসিং এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

মর্মান্তিক এ দুর্ঘটনাকে প্রত্যক্ষদর্শীরা আত্মহত্যা বলে দাবি করলেও পুলিশ বলছে, রেলক্রসিং পারাপারের সময় অসাবধানতাবশত এ দুর্ঘটনা ঘটে থাকতে পারে।

নিহতরা হলেন, মহানগরীর মতিহার থানার ধরমপুর এলাকার কামরুজ্জামান রুবেল (৩০) ও তার মেয়ে রুবাইয়া খাতুন (৩)।

জিআরপি থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মশিউর রহমান জানান, দুপুরে রেলস্টেশন থেকে ২টা ১৫ মিনিটের খুলনাগামী আন্তঃনগর ট্রেন কপোতাক্ষ এক্সপ্রেস ছাড়ার কথা ছিল। কিন্তু ট্রেনটি বিলম্ব হওয়ায় সাড়ে ৩টার দিকে ভদ্রা জামালপুর রেলক্রসিং অতিক্রম করছিল। ওই সময় রেলক্রসিং পার হতে গিয়ে কামরুজ্জামান রুবেল ও তার মেয়ে ট্রেনে কাটা পড়েন। এর মধ্যে রুবেল ঘটনাস্থলেই মারা যান।

পরে স্থানীয়ারা মুমূর্ষু অবস্থায় কামরুজ্জামানের শিশুকন্যাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে পাঠায়। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শিশুটিরও মৃত্যু হয়।

আশপাশের লোকজন বিষয়টিকে ‘আত্মহত্যা’ বলে উল্লেখ করলেও ঘটনাস্থলে গিয়ে প্রাথমিক তদন্তে বিষয়টির সত্যতা পাওয়া যায়নি বলে জানান পুলিশ কর্মকর্তা।

একই কথা বলেন জিআরপি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাঈদ ইকবাল। তিনি জানান, এটি একটি দুর্ঘটনা। রেলক্রসিংয়ে গিয়ে ট্রেনের নিচে ঝাঁপ দিয়ে রুবেল ও তার মেয়ে আত্মহত্যা করেছেন-এমন তথ্যের সত্যতা পাওয়া যায়নি। এরপরও এ ব্যাপারে আরও তদন্ত করে দেখা হবে। এ ছাড়া নিহতদের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য রামেক হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হচ্ছে। এ ঘটনায় জিআরপি থানা ও রাজপাড়া থানায় পৃথক মামলা হবে বলেও জানান এ কর্মকর্তা।

advertisement