advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

স্ক্রু ড্রাইভার দিয়ে বন্ধুকে খুন, যুবক আটক

চট্টগ্রাম প্রতিনিধি
৪ নভেম্বর ২০১৯ ১৩:৪৫ | আপডেট: ৪ নভেম্বর ২০১৯ ১৫:৩৬
নাহিদ (১৯) । ছবি : সংগৃহীত
advertisement

চট্টগ্রামে স্ক্রু ড্রাইভারের আঘাতে বন্ধুকে খুনের ঘটনায় প্রধান সন্দেহভাজনকে আটক করেছে পুলিশ। আজ সোমবার সকালে ঢাকার মালিবাগ থেকে মো. সোহেল (২২) নামে ওই যুবককে আটক করা হয়।

আটক সোহেল কুমিল্লার চান্দিনার বাসিন্দা এবং পেশায় অটোরিকশার মিস্ত্রি। বর্তমানে তিনি চট্টগ্রামের আমবাগান এলাকায় থাকতেন।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে চট্টগ্রামের খুলশী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) প্রণব চৌধুরী জানান, গতকাল রোববার রাতে হত্যাকাণ্ডের পর চট্টগ্রাম থেকে ঢাকায় পালিয়ে এসেছিল সোহেল। চট্টগ্রামে তাকে না পেয়ে খুলশী থানা পুলিশের একটি দল ঢাকায় যায়। আজ সকালে মালিবাগের রাস্তা থেকে তাকে আটক করে পুলিশ।

তিনি বলেন, ‘গ্রেপ্তার হওয়ার পর সোহেল পুলিশকে বলেন, নাহিদ ও সে বন্ধু ছিল। শনিবার ঝাউতলা এলাকায় নাহিদরা মারামারি করতে গিয়েছিল। সে না যাওয়ায় গতকাল রাতে নাহিদ কারণ জানতে চায়। এ নিয়ে কথা কাটাকাটির পর সোহেলকে মারধর করে নাহিদ। তখন সোহেল হাতে থাকা স্ক্রু ড্রাইভার দিয়ে নাহিদের বুকে আঘাত করে।’

ওসি বলেন, ওয়ার্ড কাউন্সিলর অফিসের সিসি ক্যামেরা থেকে সংগ্রহ করা ভিডিও ফুটেজে সোহেলকে মারধর করতে দেখা গেছে। তাকে চট্টগ্রামে নেওয়ার পর জিজ্ঞাসাবাদে বিস্তারিত জানা যাবে।

নাহিদ খুন হওয়ার ঘটনায় এখন পর্যন্ত কোনো মামলা হয়নি বলেও জানান পুলিশের এই কর্মকর্তা।

এর আগে রোববার রাতে নগরীর আমবাগান এলাকায় ১৩ নম্বর পাহাড়তলী ওয়ার্ড কাউন্সিলর কার্যালয়ের সামনে খুন হন ১৯ বছর বয়সী নাহিদ। ইতিমধ্যেই এ ঘটনার সিসিটিভি ফুটেজ সংগ্রহ করেছে পুলিশ।

ফুটেজে দেখা গেছে, দুই গ্রুপের সদস্যদের মধ্যে মারামারি চলছিল। কয়েকজন নারী তাদের ছাড়াতে চেষ্টা করছে। অন্যরা যখন সোহেলকে মারছিল, তখন নাহিদ কিছুটা পিছিয়ে মাটিতে বসে পড়ে। রাস্তায় পড়ে আবার টলতে টলতে উঠে কয়েক পা এগিয়ে গেট ধরে ভারসাম্য রাখার চেষ্টা করতে গিয়ে ঢলে পড়ে যায়।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, নাহিদ রাস্তায় পড়ে গেলে স্থানীয়রা তাকে ধরাধরি করে মা ও শিশু হাসপাতালে নিয়ে যান। কিন্তু কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

advertisement