advertisement
Azuba
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

আ.লীগ একটি সাম্প্রদায়িক দল : মওদুদ

নিজস্ব প্রতিবেদক
৮ নভেম্বর ২০১৯ ১৮:৫৮ | আপডেট: ৮ নভেম্বর ২০১৯ ১৮:৫৮
জাতীয় প্রেসক্লাবে স্বাধীনতা ফোরামের উদ্যোগে আয়োজিত সভায় বক্তব্য দেন মওদুদ আহমদ। ছবি : স্টার মেইল
advertisement

ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগকে একটি সাম্প্রদায়িক রাজনৈতিক দল বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ।

আজ শুক্রবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবে স্বাধীনতা ফোরামের উদ্যোগে ঢাকার সাবেক মেয়র ও গেরিলা মুক্তিযোদ্ধা সাদেক হোসেন খোকার মৃত্যুর পর তাকে নিয়ে আয়োজিত আলোচনা সভা হয়। সেখানে এ মন্তব্য করেন মওদুদ।

বিএনপির এই জ্যেষ্ঠ নেতা বলেন, ‘আওয়ামী লীগ কত মন্দির, আমাদের সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের সম্পত্তি দখল করেছে, তার হিসাব যদি আমরা দেই তাহলে দেখা যাবে, আওয়ামী লীগ একটি সাম্প্রদায়িক রাজনৈতিক দল। কারণ, তারা সংখ্যালঘুদের ওপর অত্যাচার-নির্যাতন করে যাচ্ছে।’

নিজেদের আমলে সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের প্রার্থনা কেন্দ্রগুলো বেড়েছে জানিয়ে মওদুদ বলেন, ‘আমরা যখন ক্ষমতায় ছিলাম, তখন দুই হাজারের বেশি পূজামণ্ডপ বৃদ্ধি পেয়েছিল। তাদের (আওয়ামী লীগ) সময়ে এসে এটা কমে গেছে। কারণ, হিন্দুরা সিকিউরড ফিল করেন না। যদিও আমরা বলি, তারা ভোট ব্যাংক, আসলে তারা মনে-প্রাণে আওয়ামী লীগকে সাংঘাতিকভাবে ভয় পায়।’

মওদুদ আহমদ আরও বলেন, ‘এই সরকারের পতন-এটা সময়ের ব্যাপার। যেকোনো ছোট ঘটনা থেকে বড় বড় ঘটনা ঘটে যখন সরকারের পক্ষে আর সেগুলো সামাল দেওয়া সম্ভব হবে না। যেমন দুর্নীতি; এই দুর্নীতি সরকারের পক্ষে সমাল দেওয়া সম্ভব হবে না। দুই-চারজন বা কয়েকজনকে সাজা দিলে দুর্নীতি থেকে মুক্ত হতে পারবে না ‘

বিএনপির এই নেতা বলেন, ‘দেশের মানুষ আন্দোলন করবে এবং তাদের পতন আনবে। এই সরকার নিজস্ব দুর্বলতা-ব্যর্থতার কারণে তাদের পতন টেনে আনবে। আমরা এই আন্দোলনের মাধ্যমে সেটাকে সফল করার চেষ্টা করব।’

জাতীয় সংসদ অধিবেশনে শোক প্রস্তাবের ওপর প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যের সমালোচনা করে মওদুদ বলেন, ‘গতকাল প্রধানমন্ত্রী অনেকের স্মৃতিচারণ করেছেন। জাসদের নেতা বাদল মারা গেছেন, তার জন্য কথা বলেছেন। কিন্তু ক্ষণিকের জন্য তিনি সাদেক হোসেন খোকার নাম উচ্চারণ করেননি। আমরা লজ্জা পেয়েছি, আমাদের দেশের প্রধানমন্ত্রী তিনি এত জনের কথা বললেন, কিন্তু খোকার কথা বললেন না।’

প্রশ্ন রেখে মওদুদ বলেন, ‘কেন করেননি? সাদেক হোসেন খোকা একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা ছিলেন। শুধু কি এটাই কারণ, একটা সুষ্ঠু অবাধ নির্বাচনের মাধ্যমে খোকা প্রধানমন্ত্রীকে হারিয়ে দিয়েছিলেন; এই কারণেই কি তার কথাটা তার মনে আসেনি?’

স্বাধীনতা ফোরামের সভাপতি আবু নাসের মুহাম্মদ রহমাতুল্লাহর সভাপতিত্বে আলোচনায় আরও বক্তব্য দেন জেএসডির সভাপতি আসম আবদুর রব, বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল্লাহ আল নোমান, গণস্বাস্থ্যের ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী, চেয়ারপারসনের বিশেষ সহকারী শামসুর রহমান শিমুল বিশ্বাস, বিলকিস জাহান শিরিন, নিপুণ রায় চৌধুরী প্রমুখ।

advertisement