advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

ট্রাম্পকে ২০ লাখ ডলার জরিমানা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
৯ নভেম্বর ২০১৯ ০০:০০ | আপডেট: ৯ নভেম্বর ২০১৯ ০২:১৫
advertisement

দাতব্য তহবিলের অর্থ নির্বাচনী প্রচারে খরচ করায় মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে ২০ লাখ ডলার জরিমানা করেছেন নিউইয়র্কের একটি আদালত। ট্রাম্পের সঙ্গে কোনো ধরনের সম্পর্ক নেই-এমন আটটি অলাভজনক প্রতিষ্ঠানকে এ অর্থ দিতে নির্দেশ দিয়েছেন বিচারক স্যালিয়ান স্কারপুলা। বিবিসি।

কৌঁসুলিরা অভিযোগ করেছেন, ট্রাম্পের রাজনৈতিক স্বার্থে তার নামের ওই দাতব্য সংস্থাটি ব্যবহৃত হতো। এমন অভিযোগের পর ২০১৮ সালে দ্য ডোনাল্ড জে ট্রাম্প ফাউন্ডেশনটি বন্ধ করে দেওয়া হয়। স্কারপুলা তার রায়ে মন্তব্য করেছেন, ট্রাম্প এবং তার তিন সন্তান তাদের পরিচালিত এ দাতব্য প্রতিষ্ঠানটিকে রাজনৈতিক কাজে ব্যবহার করতে পারেন না। তিনি বলেছেন, ২০১৬ সালের আইওয়া প্রাইমারিতে খরচ করে ট্রাম্প ‘জিম্মাদারের দায়িত্ব লঙ্ঘন’ করেছেন।

নিউইয়র্কের অ্যাটর্নি জেনারেল লেতিসিয়া জেমস বলেছেন, ফাউন্ডেশনটির অপর তিন পরিচালক ডোনাল্ড জুনিয়র, এরিক ও ইভাঙ্কা ট্রাম্পকে ‘দাতব্য সংস্থার দায়িত্বে থাকা কর্মকর্তা ও পরিচালকদের’ কাছ থেকে বাধ্যতামূলক প্রশিক্ষণ নিতে হবে। নিজের নামে প্রতিষ্ঠিত দাতব্য সংস্থার অর্থ অপব্যবহারের এ মামলাটি নিয়ে ট্রাম্প শুরু থেকেই ত্যক্ত বিরক্ত। নিউইয়র্কের ডেমোক্র্যাটরা তাকে ‘ফাঁসানোর জন্য সবকিছুই করছে’ বলেও অভিযোগ করেছিলেন তিনি।

ট্রাম্পের আইনজীবীরাও ২০১৮ সালের জুনে নিউইয়র্কের সাবেক অ্যাটর্নি জেনারেল বারবারা আন্ডারউডের করা এ মামলাটিকে ‘রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত’ হিসেবে অভিহিত করেছিলেন।

২০১৬ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে অপ্রত্যাশিতভাবে জয় পেয়ে সবাইকে চমকে দিয়েছিলেন ধনকুবের ট্রাম্প। তার কাছে হেরে যান ডেমোক্র্যাটিক প্রার্থী হিলারি ক্লিনটন যিনি দেশটির সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী। ২০১৭ সালের ২০ জানুয়ারি যুক্তরাষ্ট্রের ৪৫তম প্রেসিডেন্ট হিসেবে ক্ষমতা গ্রহণ করেন রিপাবলিকান ট্রাম্প।

প্রথমে অনেকেই বলেছিলেন, ট্রাম্প সে দেশের ‘অতিথি প্রেসিডেন্ট’। তবে বিতর্ক ও সমালোচনা সত্ত্বেও তিনি প্রায় তিন বছর পার করে দিচ্ছেন।

advertisement