advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

আমার জন্য কারও ক্ষতি হোক, এটা চাই না : ফেরদৌস

বিনোদন প্রতিবেদক
৯ নভেম্বর ২০১৯ ২০:৩১ | আপডেট: ৯ নভেম্বর ২০১৯ ২০:৩১
চিত্রনায়ক ফেরদৌস আহমেদ। পুরোনো ছবি
advertisement

চিত্রনায়ক ফেরদৌস আহমেদ। ২০১৮ সালে ‘পুত্র’ সিনেমার জন্য সেরা অভিনেতার পুরস্কার জিতেছেন। পুরস্কার ও সমসাময়িক বিষয়ে দৈনিক আমাদের সময় অনলাইন’র মুখোমুখি হয়েছেন জনপ্রিয় এই অভিনেতা।

এই নিয়ে পাঁচবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার জিতেছেন। অনুভূতি কি একই রকম?

পুরস্কার পাঁচবার কিংবা পঞ্চাশবার জিতুন, প্রতিবারই মনে হয় এই প্রথম জিতলাম। মানে অনুভূতিটা প্রথমবারের মতোই থাকে। আর যে কোন সম্মাননা পেলে দায়িত্ব আরও বেড়ে যায়। ভালো কাজের ক্ষুধাও বাড়িয়ে তোলে। আমি এমনিতেই চেষ্টা করি, গল্প নির্ভর ছবিতে কাজ করতে।

ছবিতে অভিনয়ের সময় কি পুরস্কারের বিষয়টি মাথায় ছিল?

একদমই না। পুরস্কারের আশায় কখনো কাজ করিনি। দীর্ঘ অভিনয় জীবনে অনেক বাণিজ্যিক ছবিতে কাজ করেছি। অর্টিস্টিক বাচ্চাদের নিয়ে নির্মিত এমন ছবিতে প্রথম কাজ করলাম। অভিনয়ের সময় নিজের মধ্যে অন্য রকম একটা ভালো লাগা কাজ করেছিল। দায়বদ্ধতা থেকে এতে অভিনয় করেছি। এর জন্য অনেক পরিশ্রমও করেছি। আমি মনে করি, এই ছবির মাধ্যমে অনেকেই উপকৃত হয়েছেন ও হবেন।

আপনার কাছে একটি ছবির প্রধান বিষয় কোনটি হওয়া উচিত?

অবশ্যই গল্প। কে অভিনয় করল, কে পরিচালনা করল সেটা মুখ্য বিষয় নয়। গল্প না থাকলে আপনি যাকে দিয়েই অভিনয় করান না কেন, ছবি কেউ দেখবে না। সাম্প্রতিক সময়ে নিশ্চয়ই দেখেছেন, আমির, শাহরুখ, সালমান খানের ছবিও কিন্তু দর্শক দেখেন নাই। এর কারণ কী? আমি বলব গল্প ছিল না বলেই, ছবি মুখ থুবড়ে পরেছে। তারা তো পরীক্ষিত অভিনেতা, এতে কোনো সন্দেহ নেই।

ভারতের দত্তাছবির কাজ আপনাকে ছাড়াই শুরু হয়েছে...

হ্যাঁ, আমার জন্য ‘দত্তা’র কাজ অনেক দিন আটকে ছিল। ছবির পরিচালক নির্মল চক্রবর্তীর সঙ্গে বেশ কয়েকবার কথাও হয়েছে। আমার জন্য কারও ক্ষতি হোক এটা আমি চাই না। ভিসার বিষয়টি সমাধান না হওয়ায় তাকে কাজটি শুরু করতে বলেছি।

advertisement