advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

শিষ্যদের চেষ্টায় বিস্মিত ডমিঙ্গো

সাইফুল ইসলাম রিয়াদ,নাগপুর থেকে
৯ নভেম্বর ২০১৯ ২২:০৭ | আপডেট: ১০ নভেম্বর ২০১৯ ০৪:১৬
বাংলাদেশ দলের প্রধান কোচ রাসেল ডমিঙ্গো। পুরোনো ছবি
advertisement

রিয়াদ-মুশফিকদের চেষ্টা আর পরিশ্রমে মুগ্ধ প্রধান কোচ রাসেল ডমিঙ্গো। দলে নেই সেরা পারফর্মার সাকিব আল হাসান, নেই পরীক্ষিত ওপেনার তামিম ইকবাল। ইনজুরির কারণে শেষ মুহূর্তে হারাতে হয়েছে পেস অলরাউন্ডার মোহাম্মদ সাইফউদ্দিনকে।

দলের পরীক্ষিত এসব পারফর্মারদের রেখে আসতে হয়েছে ভারতের মতো দলের বিপক্ষে গুরত্বপূর্ণ সফরে। তিন টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথম ম্যাচে খেলতে নেমেই জয় করেছেন দিল্লি। দ্বিতীয় ম্যাচ হারলেও শিষ্যদের কোনো দোষ দিচ্ছেন না গুরু ডমিঙ্গো। তার মতে যেভাবে তারা নিজেদের উজাড় করে দিচ্ছেন তাতে তিনি মুগ্ধ, বিস্মিত।

ভারতের মাটিতে দুটি টি-টোয়েন্টি খেলে ফেললেও আড়ালেই ছিলেন ডমিঙ্গো। দুই দলই একটি করে ম্যাচ জিতে এখন ১-১ সমতায়। আজ তৃতীয় ও শেষ ম্যাচটি রুপ নিলো অলিখিত ফাইনালে। হয়তোবা এই ম্যাচের চাপ থেকে মুক্ত রাখতে অধিনায়কের পরিবর্তে কথা বলতে আসেন তিনি। এসেই প্রশংসায় ভাসালেন তাদের।

‘ক্রিকেটারদের কৃতিত্ব পাওয়া উচিত। তারা গত কয়েকটি সপ্তাহ অনেক কঠিন সময় পার করেছে। কিন্তু গত ১০ দিনে তারা অনুশীলনে যে শক্তি দেখিয়েছে, জয়ের জন্য যে তীব্র আকাঙ্ক্ষা দেখিয়েছে অবশ্যই তারা প্রশংসার দাবিদার। তারা তাদের দায়িত্ব দুর্দান্তভাবে পালন করেছে। সব কৃতিত্ব খেলোয়াড়দের দেওয়া উচিত’, নিজের শিষ্যদের নিয়ে এভাবেই বলছিলেন ডমিঙ্গো।

তিনি কথা বলেন লিটন-সৌম্যর ব্যাটিং নিয়েও। দুজনেই শুরুর দিকে ভালো শুরু করেও ইনিংস লম্বা করতে পারেননি। প্রথম ম্যাচে সৌম্য ৩৯ ও দ্বিতীয় ম্যাচে আউট হয়েছেন ৩০ রান করে। অন্যদিকে প্রথম ম্যাচে লিটন সুবিধা না করতে পারলেও দ্বিতীয় ম্যাচে দুই দুইবার সুযোগ পেয়েও আউট হয়েছেন ২৯ রান করে। অথচ তাদের সামনে সুযোগ ছিল ইনিংস লম্বা করে দলকে লড়াকু সংগ্রহ এনে দেওয়ার। ক্রিজে থিতু হয়েঈ তারা ইনিংস লম্বা করতে পারেননি।

এই প্রশ্নের মুখোমুখি হয়ে হাসি মুখে কোচ বলেন, ‘এটার উত্তর তারাই ভালো জানে। আসলে তারা গুরত্বপূর্ণ মুহূর্তে সিদ্ধান্ত নিতে পারে না কেমন শট নিবে। কিন্তু তারা চেষ্টা করে ইনিংস বড় করার জন্য। তাদের আরও অনেক কাজ করতে হবে বড় বড় ইনিংস খেলার জন্য।’

কোচের মতে ম্যাচে একজনকে অবশ্যই ৭০/৮০ রানের মতো বড় স্কোর করতে হবে। তাহলে ম্যাচ জেতা সম্ভব বলে মনে করেন ডমিঙ্গো।

advertisement