advertisement
International Standard University
advertisement
Azuba
advertisement
advertisement
advertisement

সব খবর

advertisement

উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের হারিয়ে যাওয়া উত্তরপত্র মিলল ‘ভাঙারির’ দোকানে!

ইউ.এন.বি
১১ নভেম্বর ২০১৯ ০০:৫৫ | আপডেট: ১১ নভেম্বর ২০১৯ ০০:৫৫
ছবি : সংগৃহীত
advertisement

বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের (বাউবি) অধীনে অনুষ্ঠিত বিএ এবং বিএসএস ২০১৮ এর সমাজতত্ব-২ পরীক্ষার ২৯৪টি উত্তরপত্র হারিয়ে যাওয়ার তিন দিন পর একটি ‘ভাঙারির’ দোকান থেকে উদ্ধার করা হয়েছে।

গত শনিবার বিকেলে ব্রাহ্মণবাড়িয়া রেলওয়ে স্টেশন রোডের একটি ‘ভাঙারির’ দোকান থেকে এই উত্তরপত্র উদ্ধার করা হয়।

এর আগে, গত ৭ নভেম্বর এ উত্তরপত্রগুলো হারিয়ে ফেলেন জেলার কসবা উপজেলার সরকারি আদর্শ মহাবিদ্যালয়ের সমাজকর্মের প্রভাষক মো ছায়েদুর রহমান। তিনি ব্রাহ্মণবাড়িয়া রেলওয়ে স্টেশন এলাকায় খাতাগুলো হারিয়ে ফেলেন। শনিবার দুপুরে তিনি নিজেই খাতাগুলো খুঁজে পান।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো সেলিম উদ্দিন ও প্রভাষক ছায়েদুর রহমান উত্তরপত্র পাওয়ার বিষয়টি স্বীকার করলেও এ বিষয় কিছুই জানেন না বলে জানিয়েছেন কসবা উপজেলা সরকারি আদর্শ মহাবিদ্যালয়ের অধ্যক্ষ মো ইসহাক ভূঁইয়া। তিনি বলেন, ‘প্রভাষক ছায়েদুর রহমান বিষয়টি আমাকে জানাননি।’

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর মডেল থানায় দায়ের করা সাধারণ ডায়েরিদে (জিডি) বলা হয়, ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌর এলাকার বণিকপাড়ার বাসিন্দা প্রভাষক ছায়েদুর রহমান গত ৭ নভেম্বর বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের আঞ্চলিক কেন্দ্র কুমিল্লা থেকে বিএ এবং বিএসএস পরীক্ষার ২০১৮ এর উত্তরপত্র নিয়ে কুমিল্লা থেকে চট্টলা এক্সপ্রেস ট্রেনে করে ব্রাহ্মণবাড়িয়া রেলওয়ে স্টেশনে আসেন। দুপুর দেড়টার দিকে তিনি ট্রেন থেকে নেমে রিকশা ডাকতে যান। পরে এসে দেখেন খাতা ভর্তি বস্তাটি নেই।

খাতা খুঁজে পাওয়ার বিষয়টি স্বীকার করে প্রভাষক ছায়েদুর রহমান জানান, টোকাইয়ের মাধ্যমে তিনি নিজেই খাতাগুলো খুঁজে পেয়েছেন। শনিবার বিকালে তিনি স্টেশন রোড এলাকার একটি ভাঙারির দোকান থেকে খাতাগুলো উদ্ধার করেন। সব খাতাই অক্ষত আছে বলে তিনি দাবি করেন।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুহাম্মদ সেলিম উদ্দিন জানান, শনিবার থানায় একটি জিডি করার পর পুলিশ ও ওই ব্যক্তি স্টেশনের আশপাশের এলাকায় খাতার সন্ধানে নামেন। শনিবার বিকেলে স্টেশন রোডের একটি ভাঙারির দোকান থেকে খাতাগুলো উদ্ধার করা হয়েছে।

advertisement