advertisement
advertisement
Azuba
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

আতঙ্কে আনন্দ নিয়ে এলো দুই বুলবুলি

নিজস্ব প্রতিবেদক খুলনা ও পটুয়াখালী
১২ নভেম্বর ২০১৯ ০০:০০ | আপডেট: ১২ নভেম্বর ২০১৯ ০১:০১
advertisement

উপকূলের মানুষ যখন ঘূর্ণিঝড় বুলবুল আতঙ্কে জানমাল রক্ষায় ব্যস্ত, তখনই পৃথিবী আলো করে আনন্দের বারতা নিয়ে মায়ের কোলে জন্ম নিল দুই কন্যাশিশু। তাদের জন্মক্ষণকে স্মরণীয় করে রাখতেই তাদের নাম রাখা হয়েছে বুলবুলি। সুস্থ আছেন দুই কন্যা ও তাদের মা।

বাগেরহাটের মোংলার মিঠাখালী সাইক্লোন শেল্টারে শনিবার গভীর রাতে জন্ম হয় এক কন্যাশিশুর। মোংলা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. রাহাত মান্নান জানান,

রাতে দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ার মধ্যে মিঠাখালী এটিসি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় আশ্রয়কেন্দ্রে হনুফা বেগমের সন্তান ভূমিষ্ঠ হবে বলে জানতে পারেন। এর পর মোংলা পরিবার পরিকল্পনা অফিস থেকে ধাত্রী এবং উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে চিকিৎসক পাঠানোর ব্যবস্থা করেন। চিকিৎসক যেতে না পারলেও ধাত্রী যান। তার হাতেই জন্ম হয় শিশুটির। ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের সময় জন্ম বলে শিশুটির বাবা বায়জিদ শিকদার নবজাতকের নাম রাখেন বুলবুলি। বাগেরহাটের জেলা প্রশাসক মামুনুর রশিদ খবর পেয়ে বুলবুলির পরিবারের জন্য ২০ হাজার টাকা উপহার ঘোষণা করেন।

এদিকে পটুয়াখালীর কলাপাড়া উপজেলার নীলগঞ্জ ইউনিয়নের আবাসনে শনিবার বেলা দেড়টার দিকে হুমায়রা বেগমের কোলজুড়ে আসে ফুটফুটে কন্যাসন্তান। মা ও নবাজতক আছেন কলাপাড়া পৌর শহরের নীলগঞ্জ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শাহেলা পারভীনের মংগলসুখ সড়ক এলাকার বাড়িতে। দুজনই সুস্থ আছে।

শাহেলা পারভীন জানান, নীলগঞ্জ আবাসনে ওই মায়ের সন্তান প্রসবের খবর পেয়েই তিনি ছুটে যান। গিয়ে দেখেন, গরিব পরিবার। আবাসনের ভাঙা ঘর। নেই তেমন সুব্যবস্থা। দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ার কারণে ঘরটি আরও নড়বড়ে। এ অবস্থায় মা-মেয়ের নিরাপত্তার কথা ভেবে তাদের বাড়িতে এনে আশ্রয় দেন তিনি।

ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের প্রাক্কালে জন্ম বলেই মায়ের সঙ্গে আলাপ করে শাহেলা নবজাতকটির নাম রাখেন বুলবুলি। তার বাবা আবুল কালাম একজন ডেকোরেটর শ্রমিক। তিনি মেয়ের জন্য সবার কাছে দোয়া চান।

advertisement