advertisement
Azuba
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

বেতন বাড়ছে প্রাথমিকের শিক্ষকদের

১৩ নভেম্বর ২০১৯ ০১:১৭
আপডেট: ১৩ নভেম্বর ২০১৯ ০১:১৭
advertisement

সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের বেতন বাড়ানো হচ্ছে। এরই মধ্যে সম্মতি দিয়ে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়কে চিঠি দিয়েছে অর্থ বিভাগ। সে অনুযায়ী প্রশিক্ষণ নেওয়া ও প্রশিক্ষণবিহীন দুই ধরনের প্রধান শিক্ষকদের বেতন গ্রেড হচ্ছে ১১তম। আর প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত ও প্রশিক্ষণবিহীন সহকারী শিক্ষকদের ১৩তম গ্রেড নির্ধারণ করা হয়েছে। এ ছাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সহকারী প্রধান শিক্ষকের পদ সৃষ্টির জন্য জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের সম্মতিসহ প্রস্তাব পেলে সেটির বেতন

স্কেল নির্ধারণ করা হবে বলে জানিয়েছে অর্থ বিভাগ।
বর্তমানে প্রশিক্ষণ পাওয়া ও প্রশিক্ষণবিহীন প্রধান শিক্ষকদের বেতন গ্রেড যথাক্রমে ১১তম ও ১২তম। আর প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত ও প্রশিক্ষণবিহীন সহকারী শিক্ষকরা যথাক্রমে ১৪তম ও ১৫তম গ্রেডে বেতন পান। নতুন গ্রেড অনুযায়ী একজন শিক্ষকের শুরুতে মূল বেতন হবে সাড়ে ১২ হাজার টাকা। আর ১৩তম গ্রেডে হবে ১১ হাজার টাকা। যদিও আন্দোলনকারী শিক্ষকদের দাবি প্রধান শিক্ষককে ১০তম এবং সহকারী শিক্ষককে ১১তম গ্রেডে বেতন দেওয়ার।
বেতন গ্রেডে উন্নীত করার দাবিতে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকরা দীর্ঘদিন ধরেই আন্দোলন করছেন। এর অংশ হিসেবে তারা ঢাকায় সমাবেশ করে আসন্ন প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী (পিইসি) পরীক্ষা বর্জনেরও হুমকি দিয়েছিলেন। অবশ্য পরে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী জাকির হোসেন এবং প্রাথমিক ও গণশিক্ষা সচিব মো. আকরাম আল-হোসেনের সঙ্গে বৈঠক করে পরীক্ষা বর্জনের কর্মসূচি প্রত্যাহার করেন শিক্ষকরা।
এ বিষয়ে বাংলাদেশ প্রাথমিক শিক্ষক ঐক্য পরিষদের সদস্য সচিব মোহাম্মদ শামছুদ্দিন মাসুদ আমাদের সময়কে বলেন, ‘অর্থ বিভাগের সম্মতি দেওয়া গ্রেড আমরা মানব না। এ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সাক্ষাতের অপেক্ষায় আছি। যদি ১৭ ডিসেম্বরের মধ্যে ওনার সঙ্গে সাক্ষাতের ব্যবস্থা না করা হয়, তাহলে আবারও নতুন কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে। আমরা প্রধানমন্ত্রীর সম্মানে পিইসি পরীক্ষায় দায়িত্ব পালনের সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’

 

advertisement