advertisement
Azuba
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

রাজস্ব কর্মকর্তার ১৬ বছরের কারাদ-

১৩ নভেম্বর ২০১৯ ০১:২৫
আপডেট: ১৩ নভেম্বর ২০১৯ ০১:২৫
advertisement

বাবার নামে মুক্তিযোদ্ধার ভুয়া সনদ জমা দিয়ে চাকরি নেওয়ার অভিযোগে সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা মো. মনিরুজ্জামানকে ১৬ বছর কারাদ- দিয়েছেন আদালত। গতকাল মঙ্গলবার ঢাকার সাত নম্বর বিশেষ জজ মো. শহিদুল ইসলাম দ-বিধির ৩টি ধারায় এ রায় ঘোষণা করেন। মনিরুজ্জামান মানিকগঞ্জ জেলার সাটুরিয়া থানার তেবাড়িয়া গ্রামের মো. আবদুস সামাদের ছেলে।
রায় সম্পর্কে আদালতে দুদকের পাবলিক প্রসিকিউটর রেজাউল করিম জানান, আদালত ১৬ বছর কারাদ-ের মধ্যে প্রতারণার অভিযোগে

৭ বছর, জালিয়াতির অভিযোগে ৭ বছর এবং জাল
জেনেও চাকরি পেতে মুক্তিযোদ্ধার ভুয়া সনদ ব্যবহারের অভিযোগে মনিরুজ্জামানকে ২ বছর কারাদ- দিয়েছেন। এ ছাড়া রায়ে তাকে আরও ২০ হাজার টাকা অর্থদ- করা হয়েছে, যা অনাদায়ে আরও এক বছরের কারাদ-ের আদেশ রয়েছে। তবে রায়ে সব ধারার সাজা একযোগে কার্যকর করতে হবে মর্মে আদেশ থাকায় আসামিকে ৭ বছর কারাদ- ভোগ করতে হবে। রায় ঘোষণার সময় আসামি মনিরুজ্জামান পলাতক ছিলেন। তাই রায়ে তাকে গ্রেপ্তার বা আত্মসমর্পণের দিন থেকে সাজা গণনা শুরু হবে বলে উল্লেখ করা হয়েছে।
জালিয়াতির অভিযোগে ২০১৫ সালের ১৫ জানুয়ারি মনিরুজ্জামানের বিরুদ্ধে মামলা করে দুদক। অভিযোগে বলা হয়, মনিরুজ্জামান মানিকগঞ্জ জেলার সাটুরিয়া থানার আবদুুস সামাদের ছেলে। কিন্তু তিনি চাকরির আবেদনপত্রের সঙ্গে আবদুুস সামাদ নামীয় মুক্তিযোদ্ধার সনদপত্র দাখিল করেন। একই বছর ২৪ নভেম্বর তার বিরুদ্ধে চার্জশিট দাখিল করা হয়। ২০১৬ সালের ১৯ জুলাই অভিযোগ গঠনের মাধ্যমে শুরু হয় বিচার। বিভিন্ন সময়ে তার বিরুদ্ধে ২২ জন সাক্ষী আদালতে সাক্ষ্য দেন।

advertisement