advertisement
International Standard University
advertisement
Azuba
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

আজ দেশে ফিরছেন সৌদিতে নির্যাতিতা সেই সুমি

কামাল পারভেজ অভি,সৌদি আরব
১৫ নভেম্বর ২০১৯ ০১:২৪ | আপডেট: ১৫ নভেম্বর ২০১৯ ০৫:১৫
সৌদি আরবে নির্যাতিতা বাংলাদেশি গৃহকর্মী সুমি আক্তার। ছবি : সৌদি আরব প্রতিনিধি
advertisement

অবশেষে দেশে ফিরছেন সৌদি আরবে নিয়োগকর্তার নির্যাতনের শিকার বাংলাদেশি নারী শ্রমিক সুমি আক্তার। আজ শুক্রবার স্থানীয় সময় ৭টায় এয়ার এরাবিয়ার জি-৯৫১৭ নম্বর ফ্লাইটে তিনি ঢাকায় পৌঁছাবেন বলে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন জেদ্দা বাংলাদেশ কনস্যুলেটের কার্যালয় প্রধান মোস্তফা জামিল খান।

চলতি বছরের জানুয়ারিতে সচ্ছলতার আশায় দালালের মাধ্যমে সৌদি আরবে পাড়ি জমান বাংলাদেশের মেয়ে সুমি আক্তার। বিনামূল্যে বিদেশে পাঠানোর কথা বললেও ভালো টাকা আয়ের লোভ দেখিয়ে দালালরা তাকে বিক্রি করে দেয়। সৌদি যাওয়ার সপ্তাহ খানেকের মধ্যেই মারধর আর যৌনহয়রানিসহ নানাভাবে নির্যাতনের শিকার হন তিনি। সম্প্রতি ফেসবুকে ভিডিওতে কান্নাজড়িত কণ্ঠে সেই নির্যাতনের কথা তুলে ধরে দেশে ফেরার আকুতিজানান সুমি।

পরে জেদ্দা বাংলাদেশ কনস্যুলেটের হস্তক্ষেপে সুমিকে নিয়োগকর্তার বাড়ি থেকে উদ্ধার করে নাজরান পুলিশ। শুরুতে সুমির নিয়োগকর্তার দাবিকৃত ২২ হাজার সৌদি রিয়াল পরিশোধ না করা পর্যন্ত তাকে ফাইনাল এক্সিট- অর্থাৎ দেশে ফিরতে দেওয়া হবে না বলে জানালেও পরে নাজরান শহরের শ্রম আদালতে বিষয়টি নিষ্পত্তি হয়। আদালত, সুমির দেশে ফেরার আবেদন মঞ্জুর করায় তার দেশে ফেরায় আর কোনো বাধা নেই বলে জানায় জেদ্দা বাংলাদেশ কনস্যুলেট জেনারেল কার্যালয়।

সুমি আক্তার (২৬) পঞ্চগর জেলার বোদা সদর থানার রফিকুল ইসলামের মেয়ে। তার পরিবার জানায়, আগের স্ত্রীর কথা গোপন করে তাকে বিয়ে করে নুরুল ইসলাম। সেখানেও সতীনের নির্যাতনের শিকার হন তিনি। পরে উপার্জনের আশায় সৌদি আরবে যান সুমি।

advertisement