advertisement
Azuba
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

২৫ দিনের মধ্যে তিস্তাচরের পেঁয়াজ আসবে বাজারে

নুরনবী সরকার হাতীবান্ধা
১৭ নভেম্বর ২০১৯ ০০:০০ | আপডেট: ১৭ নভেম্বর ২০১৯ ০০:০৬
advertisement

পেঁয়াজের দাম প্রতিদিন হু-হু করে বাড়ছে। নতুন পেঁয়াজ বাজারে না আসা পর্যন্ত দাম কমার সম্ভাবনা নেই। এ অবস্থায় লালমনিরহাটের তিস্তা নদীর চরাঞ্চলে চুরি হওয়ার ভয়ে কৃষকরা রাত জেগে পাহারা দিচ্ছেন উঠতি পেঁয়াজ ক্ষেত। আগামী ২০-২৫ দিনের মধ্যে এসব পেঁয়াজ বাজারে আসবে বলে কয়েকজন কৃষক জানিয়েছেন। এ পেঁয়াজ বাজারে এলেই দাম কিছুটা কমবে বলে সংশ্লিষ্টরা আশা করছেন।

হাতীবান্ধা উপজেলার হলদিবাড়ী গ্রামের কৃষক সফিকুল ইসলাম, হাসান আলী ও খোরশেদ আলম জানান, আগামী ২০-২৫ দিনের মধ্যে তারা ক্ষেতের পেঁয়াজ তুলতে পারবেন। দু-একদিন রোদে শুকিয়ে নেওয়ার পর সেই পেঁয়াজ বাজারে তোলা হবে। হঠাৎ করে পেঁয়াজের দাম বেড়ে যাওয়ায় তাদের রাত জেগে উঠতি পেঁয়াজ ক্ষেত পাহারা দিতে হচ্ছে। কৃষকরা এলাকাভিত্তিক কয়েক দলে ভাগ হয়ে পালাক্রমে রাত জেগে ক্ষেত পাহারা দিচ্ছেন।

একই এলাকার কৃষক খাইরুল ইসলাম বলেন, এখন পেঁয়াজের দাম অনেক বেশি থাকলেও আমরা যখন পেঁয়াজ বাজারে তুলব, তখন দাম পাব না। এক বিঘা জমিতে পেঁয়াজ চাষে ২৫ থেকে ২৮ হাজার টাকা পর্যন্ত খরচ হয়েছে। প্রতি বিঘায় ৩০-৩৫ মণ পর্যন্ত পেঁয়াজ উৎপাদন হবে। প্রতি মণ পেঁয়াজ যদি দেড় হাজার টাকা দরে বিক্রি করা যায়, তা হলে আমাদের কিছু লাভ হবে। কিন্তু আমরা যখন পেঁয়াজ তুলব, তখন প্রতি মণ পেঁয়াজ ১ হাজার টাকা দরে বিক্রি হবে। ফলে অনেক কৃষক পেঁয়াজ চাষে আগ্রহ হারিয়ে ফেলছেন। লালমনিরহাট কৃষি বিভাগের উপপরিচালক বিধুভূষণ রায় বলেন, আমরা আশা করছি আগামী ১৫-২০ দিনের মধ্যে নতুন পেঁয়াজ বাজারে উঠবে। নতুন পেঁয়াজ বাজারে এলেই দাম ক্রয়ক্ষমতার মধ্যে চলে আসবে।

advertisement