advertisement
Azuba
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

দুবাই পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী

অনলাইন ডেস্ক
১৭ নভেম্বর ২০১৯ ০১:৪৭ | আপডেট: ১৭ নভেম্বর ২০১৯ ০১:৪৭
গতকাল শনিবার সন্ধ্যা পৌনে ৭টার দিকে আমিরাত এয়ারলাইন্সের ‘ইকে-৫৮৭’ ফ্লাইটে দুবাইয়ের উদ্দেশে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ত্যাগ করেন প্রধানমন্ত্রী। ছবি : ফোকাস বাংলা
advertisement

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সংযুক্ত আরব আমিরাতে পৌঁছেছেন। স্থানীয় সময় শনিবার রাত ১০টা ১০ মিনিটে (বাংলাদেশ সময় দিবাগত রাত ১২টা ১০ মিনিট)। দুবাই আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে নামেন প্রধানমন্ত্রী। দেশটির শাসক মোহাম্মদ বিন রাশেদ আল মাকতুমের আমন্ত্রণে চারদিনের সরকারি সফরে দুবাই এয়ার শোসহ কয়েকটি অনুষ্ঠানে অংশ নেবেন তিনি।

এর আগে গতকাল শনিবার সন্ধ্যা পৌনে ৭টার দিকে আমিরাত এয়ারলাইন্সের ‘ইকে-৫৮৭’ ফ্লাইটে দুবাইয়ের উদ্দেশে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ত্যাগ করেন প্রধানমন্ত্রী। দুবাই বিমানবন্দরের আনুষ্ঠানিকতা শেষে প্রধানমন্ত্রী সফরকালীন আবাসস্থলে যাবেন।

সফরকালে আজ রোববার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিশ্বের অন্যতম বৃহত্তম এয়ার শো এবং মধ্যপ্রাচ্য এশিয়া ও আফ্রিকার বৃহত্তম ‘দুবাই এয়ার শো-২০১৯ এর উদ্বোধনীতে যোগ দেবেন। ১৭ থেকে ২১ নভেম্বর পর্যন্ত দুবাইয়ের আকাশে দ্বিবার্ষিক এই এয়ার শো অনুষ্ঠিত হবে।

প্রধানমন্ত্রীর দুবাই সফরে তিনটি সমঝোতা স্মারক সই হবে। এগুলোর দুটি হচ্ছে- দুই দেশের বিনিয়োগ কর্তৃপক্ষের মধ্যে সহযোগিতা চুক্তি ও দুই দেশের অর্থনৈতিক অঞ্চলের মধ্যে সহযোগিতা চুক্তি এবং আরব আমিরাতের দুবাইতে বাংলাদেশ দূতাবাসের স্থায়ী ভবন নির্মাণে জমি বরাদ্দ সংক্রান্ত প্রটোকল। প্রধানমন্ত্রী ১৮ নভেম্বর আবুধাবিতে বাংলাদেশ দূতাবাসে সংযুক্ত আরব আমিরাত প্রবাসী বাংলাদেশিদের ভোটার তালিকাভুক্ত ও স্মার্ট জাতীয় পরিচয়পত্র বিতরণে নির্বাচন কমিশনের অনুষ্ঠান উদ্বোধন করবেন।

দুবাইয়ের শাসক ছাড়াও আবুধাবির যুবরাজ ও সংযুক্ত আরব আমিরাতের সশস্ত্র বাহিনীর ডেপুটি সুপ্রিম কমান্ডার শেখ মুহাম্মদ বিন জায়ের আল নাহিয়ান এবং ফ্যামিলি ডেভেলপমেন্ট ফাউন্ডেশনের সুপ্রিম চেয়ারওমেন শেখ ফাতিমা বিনতে মোবারকের সঙ্গে বৈঠক করবেন শেখ হাসিনা।

সফরকালে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে আরব আমিরাতের বড় বিনিয়োগকারী গ্রুপ ও ব্যবসায়ীদের বৈঠকের কথা রয়েছে এ সফর বাংলাদেশের বিভিন্ন খাতে সংযুক্ত আরব আমিরাতের বিনিয়োগের ওপর ইতিবাচক প্রভাব রাখবে এবং দুই দেশের বিনিয়োগ কর্তৃপক্ষের মধ্যে সহযোগিতা জোরদারে সহায়ক হবে বলে আশা করা হচ্ছে। চারদিনের আমিরাত সফর শেষে ১৯ নভেম্বর রাতে দেশে ফিরবেন প্রধানমন্ত্রী।

advertisement