advertisement
Azuba
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

প্রেম করার খরচ জোগাতে পুলিশ সেজে চাঁদাবাজি, এরপর যা হলো

অনলাইন ডেস্ক
২০ নভেম্বর ২০১৯ ১০:৩৫ | আপডেট: ২০ নভেম্বর ২০১৯ ১০:৩৮
দীপ নাটিক ও সায়নী ঘোষ। ছবি : সংগৃহীত
advertisement

প্রেম করলে টাকা লাগে। প্রেমিক/প্রেমিকাকে নিয়ে রেস্তোরাঁয় বসে খাওয়া থেকে শুরু করে সিনেমা দেখা, সবক্ষেত্রেই টাকা লাগেই।আর এ টাকা জোগাড় করতে পুলিশ সেজে প্রতারণা করতেন এক প্রেমিক-প্রেমিকা।অবশেষে পুলিশের কাছেই ধরা খেলেন তারা। 

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম জি নিউজের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ঘটনাটি ঘটেছে পশ্চিমবঙ্গের দক্ষিণ ২৪ পরগণা জেলার বারুইপুরে।আটক প্রেমিক-প্রেমিকার নাম দীপ নাটিক ও সায়নী ঘোষ।

পশ্চিমবঙ্গ পুলিশ জানায়, আটক প্রেমিকা সায়নী ঘোষ দীর্ঘদিন ধরে নিজেকে বারুইপুর থানার পুলিশ সদস্য হিসেবে দাবি করে আসছিলেন। অন্যদিকে, তার প্রেমিক দীপ নাটিক নিজেকে বারুইপুর থানা পুলিশের ‘নাগরিক স্বেচ্ছাসেবী’ হিসেবে পরিচয় দিতেন। তারা এই পরিচয় দিয়ে বিভিন্ন জনের সঙ্গে প্রতারণা করছেন- এমন খবর পেয়ে বারুইপুর থানা পুলিশ তদন্তে নামেন।

এরপর গত সোমবার বারুইপুরের মদারাট এলাকা থেকে দুজনকেই আটক করে বারুইপুর থানার পুলিশ। এ সময় তাদের কাছ থেকে পুলিশের একটি পোশাক ও পুলিশ লেখা একটি স্কুটি উদ্ধার করা হয়।

আটককৃতরা জানিয়েছেন, দীর্ঘদিন ধরে তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক রয়েছে। পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে তারা বলেন, ‘প্রেম করতে গেলে অনেক খরচ হয়। রেস্তোরাঁয় খাওয়া থেকে পার্কে ঘোরা, সিনেমা দেখার জন্য টাকার প্রয়োজন হয়। সেই টাকা জোগাড়ের জন্যই নাটকের জন্য ব্যবহৃত পুলিশের পোশাক ভাড়া করেছিলাম।

advertisement