advertisement
advertisement
Azuba
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

ব্যাংকের আইটি নিরাপত্তা বাড়ানোর পরামর্শ বিশেষজ্ঞদের

নিজস্ব প্রতিবেদক
২২ নভেম্বর ২০১৯ ০০:০০ | আপডেট: ২২ নভেম্বর ২০১৯ ০০:২৬
advertisement

দেশের ব্যাংকগুলোর আইটি নিরাপত্তায় দুর্বলতা আছে উল্লেখ করে বক্তারা বলেছেন, নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে ব্যাংকগুলোর একটি বড় অংশের পরিপূর্ণ তথ্য ও প্রযুক্তি ভালনারেবিলিটি অ্যাসেসমেন্ট অ্যান্ড পেনিট্রেশন টেস্টিং (আইটি ভিএপিটি) নীতিমালা নেই। ব্যাংকের আইটি ঝুঁকি কমাতে সমন্বিত ভিএপিটি নীতিমালা জরুরি। গতকাল বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ব্যাংক ম্যানেজমেন্টের (বিআইবিএম) সেমিনারে তারা এসব কথা বলেন।

রাজধানীর মিরপুরে বিআইবিএম অডিটরিয়ামে আয়োজিত সেমিনারে বাংলাদেশ ব্যাংকের ডেপুটি গভর্নর এসএম মনিরুজ্জামান, বিআইবিএমের মহাপরিচালক ড. আখতারুজ্জামান প্রমুখ বক্তব্য রাখেন। এতে ‘আইটি ভালনারেবিলিটি অ্যাসেসমেন্ট অ্যান্ড পেনিট্রেশন টেস্টিং ইন ব্যাংকস’ শীর্ষক গবেষণা কর্মশালায় উপস্থাপিত গবেষণা প্রতিবেদন উপস্থাপন করা হয়।

ডেপুটি গভর্নর এসএম মনিরুজ্জামান বলেন, ই-ব্যাংকিং কার্যক্রম সঠিকভাবে পরিচালনায় বাংলাদেশ ব্যাংক বেশ কিছু পদক্ষেপ নিয়েছে। একই সঙ্গে ই-কমার্স, ই-পেমেন্ট এবং স্বয়ংক্রিয় ক্লিয়ারিং হাউস সিস্টেম ও মোবাইল ব্যাংকিং পরিচালনা প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দিয়েছে। ফলে ইউটিলিটি বিল, অনলাইন লেনদেনসহ বেশ কিছু ক্ষেত্রে ইতিবাচক সাড়া পাওয়া গেছে।

ড. মো. আখতারুজ্জামান বলেন, আইটি সংশ্লিষ্ট সমস্যা সমাধানে একটি কমিটি তৈরি করতে হবে। যারা সমস্যাগুলো চিহ্নিত করে সুনির্দিষ্ট সুপারিশ করবে। ব্যাংকগুলোকে নিজেদের আইটি নিরাপত্তাকে আরও জোর দিতে হবে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের সাবেক অধ্যাপক ড. বরকত-এ-খোদা বলেন, ব্যাংকের গ্রাহকদের সব ধরনের সুরক্ষা দিতে হবে। যাতে গ্রাহকদের মধ্যে কোনো অনাস্থা তৈরি না হয়।

বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক দেবদুলাল রায় বলেন, সাইবার নিরাপত্তায় বিশেষজ্ঞ তৈরি করা কঠিন। তবে ব্যাংকের কর্মীদের দক্ষতা বাড়াতে নিজেদের উদ্যোগ নেওয়া জরুরি।

advertisement