advertisement
advertisement
Azuba
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

আইইউবিএটিতে ‘এসডিজি অর্জনে শিক্ষায় করণীয়, চ্যালেঞ্জ ও সম্ভাবনা’ বিষয়ক সেমিনার

প্রেস বিজ্ঞপ্তি
২৪ নভেম্বর ২০১৯ ২২:৪৩ | আপডেট: ২৪ নভেম্বর ২০১৯ ২২:৪৩
আইইউবিএটিতে এসডিজি অর্জনে শিক্ষায় করণীয়, চ্যালেঞ্জ ও সম্ভাবনা বিষয়ক সেমিনার। ছবি : সংগৃহীত
advertisement

ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি অব বিজনেস অ্যাগ্রিকালচার অ্যান্ড টেকনোলজিতে (আইইউবিএটি) ‘বাংলাদেশে টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্য অর্জন : শিক্ষায় করণীয়, চ্যালেঞ্জ এবং সম্ভাবনা’ শীর্ষক জাতীয় সেমিনার  অনুষ্ঠিত হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার বিশ্ববিদ্যালয়েল গ্রিন ক্যাম্পাসে এ সেমিনার  অনুষ্ঠিত হয়।

সেমিনারে প্রধান অথিতি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের এসডিজি বিষয়ক মুখ্য সমন্বয়কারী মো. আবুল কালাম আজাদ।

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব আবদুল্লাহ আল হাসান চৌধুরী, অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের (ইআরডি) অতিরিক্ত সচিব সুলতানা আফরোজ এবং ইউনেস্কোর শিক্ষা প্রোগ্রামের বিশেষজ্ঞ সুন লি।

আইইউবিএটির উপাচার্য অধ্যাপক ড. আবদুর রবের সভাপতিত্বে সেমিনারে স্বাগত বক্তব্য দেন কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক সেলিনা নার্গিস এবং মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন আইইউবিএটি ইন্সটিটিউট অব এসডিজি স্টাডিজের পরিচালক অধ্যাপক ড. আতাউর রহমান।

দিনব্যাপী সেমিনারে এসডিজি লক্ষ্যার্জনে শিক্ষার করণীয় সম্পর্কে গভীর বোধগম্যতা সৃষ্টি, এসডিজি বাস্তবায়নে বর্তমান অবস্থা, চ্যালেঞ্জ ও বাধাগুলো নির্ধারণ করা, চিহ্নিত বাধাগুলো দূরীভূত করণে সম্ভাব্য উদ্যোগের রুপরেখা এবং টেকসই উন্নয়নের বিভিন্ন লক্ষ্য অর্জনে শিক্ষা কীভাবে ভূমিকা রাখতে পারে সে বিষয়ে বক্তরা আলোচনা করেন।

সভাপতির বক্তব্যে উপাচার্য অধ্যাপক  ড. আবদুর রব বলেন, আইইউবিএটির যাত্রা শুরু হয়েছিল ১৯৯১ সালে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ও আইবিএর সাবেক পরিচালক শিক্ষাবিদ  ড. এম আলিমউল্যা মিয়ান এই প্রতিষ্ঠানের প্রতিষ্ঠাতা। আইইউবিএটির প্রত্যয় হলো- যোগ্যতা সম্পন্ন প্রত্যেক ব্যক্তির জন্য উচ্চ শিক্ষার নিশ্চয়তা- প্রয়োজনে মেধাবী তবে অসচ্ছলদের অর্থায়ন। আমাদের লক্ষ্য হচ্ছে উপযুক্ত শিক্ষা, প্রশিক্ষণ ও দিকনির্দেশনার মাধ্যমে মানব সম্পদ উন্নয়ন করা যাতে করে শিক্ষার্থীরা দেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে সহায়ক ভূমিকা পালন করতে পারেন।

তিনি বলেন, আইইউবিএটির প্রতিষ্ঠাতার স্বপ্ন ছিল প্রত্যেকটি গ্রাম থেকে অত্যন্ত একজন কে গ্র্যাজুয়েট করানো। সেই স্বপ্ন পূরণের লক্ষ্যে আমরা কাজ করছি। উচ্চ শিক্ষায় যাতে সবাই অংশ গ্রহণ করতে পারেন সে বিষয়ে মাথায় রেখে আমরা শতভাগ পর্যন্ত শিক্ষা বৃত্তি দিয়ে থাকি। বিশ্ববিদ্যালয়ে দশ জনের একটা গ্রুপ রয়েছে যারা দেশের প্রতান্ত এলাকায় যায় এবং আর্থিকভাবে অসচ্ছল মেধাবীদের উচ্চ শিক্ষা গ্রহণে উদ্বুদ্ধ করেন।

তিনি আরও বলেন, আন্তর্জাতিক ও বৈশ্বিক কর্মক্ষেত্রের জন্য এ মুহূর্তে সবচেয়ে বেশি প্রয়োজন শিক্ষায় নারী-পুরুষ নির্বিশেষে সম-উন্নয়ন। শিক্ষা মানোন্নয়ন এবং সবার একীভূত শিক্ষার সুযোগ নিশ্চিত করা এসডিজির প্রধানতম লক্ষ্য যা পূরণে কাজ করছে আইইউবিএটি।

advertisement