advertisement
Azuba
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

মানুষের ক্রয়ক্ষমতা বেড়েছে আড়াইগুণেরও বেশি : তথ্যমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক
৩ ডিসেম্বর ২০১৯ ২১:০৮ | আপডেট: ৩ ডিসেম্বর ২০১৯ ২১:০৮
অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। ছবি : আমাদের সময়
advertisement

গত সাড়ে ১০ বছরে এদেশের মানুষের ক্রয়ক্ষমতা আড়াইগুণেরও বেশি বেড়েছে বলে জানিয়েছেন তথ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাক ড. হাছান মাহমুদ। ‘দেশে দ্রব্যমূল্য অস্বাভাবিক বৃদ্ধি পেয়েছে' সম্প্রতি বিএনপি নেতা মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের এমন মন্তব্যের জবাবে ড. হাছান এ মন্তব্য করেন।

আজ মঙ্গলবার সন্ধ্যায় রাজধানীর বসুন্ধরা আবাসিক এলাকায় ইন্ডিপেন্ডেন্ট ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ মিলনায়তনে তাদের শিক্ষা-সহযোগী একাডেমিয়া স্কুলের সেরা শিক্ষার্থী সম্মাননা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য শেষে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন তিনি।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, 'বিশ্বব্যাপীই দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধি পেয়েছে। কিন্তু সাড়ে ১০ বছরে শেখ হাসিনার সরকারের নেতৃত্বে অভূতপূর্ব অর্থনৈতিক উন্নয়নের ফলে দেশের মানুষের ক্রয়ক্ষমতা বেড়েছে আড়াইগুণেরও বেশি।’

বিএনপি মূলত তাদের নেতাদের দুর্নীতির অপরাধের সাজা থেকে রেহাই পেতে জনগণকে বিভ্রান্ত করার অপকৌশল হিসেবে এ ধরনের কথা বলছে উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, ‘দুর্নীতির দায়ে সাজাপ্রাপ্ত বেগম জিয়াকে মুক্ত করাসহ নানা অপরাধে দণ্ডাদেশপ্রাপ্ত তাদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের সাজা এড়াবার জন্য জনগণকে বিভ্রান্ত করার অপচেষ্টা করছে বিএনপি। কিন্তু জনগণ আর বিভ্রান্ত হবে না।’

এ সময় গণমাধ্যমকর্মী আইন ও সম্প্রচার আইন কবে পাশ হবে, এমন প্রশ্নের জবাবে তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘এ বিষয়ে আইন মন্ত্রণালয়ের মতামত পাবার পরই আইন দুটি পাশের দ্রুত উদ্যোগ নেওয়া হবে।’

শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে ড. হাছান বলেন, ‘জীবন এক যুদ্ধক্ষেত্র। মেধার সাথে দেশপ্রেম, মানবিকতা ও মূল্যবোধের সমাবেশ ঘটিয়ে এ যুদ্ধে জয়ী হবার ব্রত নিতে হবে। মা-বাবার সেবাদান ও শিক্ষক- গুরুজনদের সম্মান এই ব্রতের অংশ।’

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, ইন্ডিপেন্ডেন্ট ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশের (আইইউবি) ভারপ্রাপ্ত উপাচার্য অধ্যাপক মিলান পাগন,  এডেক্সেল বাংলাদেশের কান্ট্রি ম্যানেজার সাইদুর রহমান, একাডেমিয়া স্কুলের পক্ষ থেকে চেয়ারপারসন সারওয়াত জেব, ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. কুতুবউদ্দিন, অধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. এম. মাহবুবুল হক, উপাধ্যক্ষ রওনক আলমগীর প্রমুখ।

advertisement